পুর প্রশাসকের নাকের ডগায় আইন ভেঙ্গে পুকুর ভরাট বালুরঘাটে, প্রতিবাদ করায় এক ব্যক্তিকে প্রাণে মারার হুমকি স্থানীয় ক্লাবের বিরুদ্ধে

পিন্টু কুন্ডু, আমাদের ভারত, বালুরঘাট, ১২ জুলাই: খোদ বালুরঘাট শহরেই প্রশাসনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে পুকুর ভরাটের অভিযোগকে ঘিরে শোরগোল। শুধু তাই নয়, প্রতিবেশীর জায়গার উপর দিয়ে জোর করে ট্রাক্টরে করে মাটি ফেলার অভিযোগও উঠেছে স্থানীয় ক্লাব সদস্যদের বিরুদ্ধে। যার প্রতিবাদ করায় প্রাণে মারার হুমকি দেওয়া হয়েছে অনন্ত কুমার সরকার নামে এক ব্যক্তিকে বলেও অভিযোগ। ঘটনা জানিয়ে বালুরঘাট থানা, মহকুমা শাসক এবং বিএলআরও’কে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন ওই ব্যক্তি। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি বালুরঘাট শহরের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিশ্বাসপাড়া এলাকার।

শহরের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিশ্বাসপাড়া এলাকায় স্থানীয় একটি ক্লাবের নামে রয়েছে ওই পুকুরটি। গত ২৯ জুন তারিখ থেকে যা ভরাটের প্রক্রিয়া শুরু করে ক্লাব কর্তৃপক্ষ বলে অভিযোগ। যে পুকুর ভরাটের জন্য ট্রাক্টরে করে মাটি নিয়ে যাওয়া হচ্ছে প্রতিবেশী অনন্ত কুমার সরকারের জায়গার উপর দিয়ে বলে অভিযোগ। যে ঘটনার প্রতিবাদ জানাতেই অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজের পাশাপাশি প্রাণে মারারও হুমকি দেওয়া হয়েছে ওই ব্যক্তিকে বলে। যার পরেই ঘটনা জানিয়ে বালুরঘাট থানা এবং মহকুমা শাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন অনন্ত কুমার সরকার। জানিয়েছেন বিএলআরও’কেও একটি লিখিত অভিযোগ। শহরের মধ্যে কাগজ কলমে থাকা একটি আস্ত পুকুর কিভাবে ভরাট করা হচ্ছে সেই প্রশ্নও তোলেন অনন্ত কুমার সরকার। খোদ পুরপ্রশাসনের নাকের ডগায় কিভাবে চলছিল ওই পুকুর ভরাট তা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন।

এলাকার বিদায়ী কাউন্সিলর কুন্তল দাস জানিয়েছেন, পুকুর যে ভরাট হচ্ছে তা সঠিক। তবে অভিযোগের পর বিষয়টি নিয়ে পৌরসভায় আলোচনায় বসা হয়েছিল। শহরের মধ্যে এমন ঘটনা কাম্য নয়, বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।

স্থানীয় ক্লাব সেক্রেটারি মিন্টু মণ্ডল জানিয়েছেন, কিছু বাস্তু জমি রয়েছে, সেটাই ভরাট করা হচ্ছিল। তবে পুরসভার নির্দেশে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

বালুরঘাট মহকুমা শাসক বিশ্বরঞ্জন মুখার্জিকে ফোন করা হলে তিনি বলেন, এধরণের অনেক অভিযোগ রোজ জমা পড়ে। তবে ছুটির দিনে তা না দেখে বলা সম্ভব নয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here