পূর্ব মেদিনীপুরে এক ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত, কোয়ারেন্টাইনে ১০ জন

আমাদের ভারত, পূর্ব মেদিনীপুর, ২ মার্চ : তমলুক থানার বল্লুক গ্রামের ৮০ বছরের এক বৃদ্ধের করোনা পজিটিভ ধরা পড়ল।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে আক্রান্ত ভদ্রলোক কলকাতাতে একটি পানের পোস্তা কাজ করতেন। গত ২৪ তারিখ তিনি বাড়ি আসেন। বাড়িতে তিনি বেশ কয়েকদিন ধরেই জ্বর-কাশি নিয়ে অসুস্থ ছিলেন। এই ভদ্রলোককে প্রথমে বাড়িতে হাতুড়ে ডাক্তার চিকিৎসা করে। পরে শারীরিক অবনতি হলে তাকে তমলুকের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। পরে নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ শারীরিক পরিস্থিতি খারাপ বুঝে কলকাতায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়। তমলুক থেকে এই বৃদ্ধকে কলকাতা একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করে। ওখানে চিকিৎসা চলাকালীন চিকিৎসকদের করোনায় আক্রান্ত বলে সন্দেহ হলে পরীক্ষার জন্য নমুনা পাঠায়। সেখানে পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। রিপোর্ট পজিটিভ বলে জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিককে জানান হলে আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ির হাতুড়ে চিকিৎসক সহ ওই ব্যক্তির বাড়ির পরিবারের কয়জনকে এবং তমলুকের এক চিকিৎসক যিনি ওই ব্যক্তিকে পরীক্ষা করেছিলেন সেই ডাক্তার সহ মোট পাঁচজনকে হাসপাতালে কোয়ারিন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের মুখের শোয়াব পাঠানো হয়েছে পরীক্ষার জন্য কলকাতায়। তমলুক হাসপাতাল সূত্রে এ খবর জানা গেছে। তবে আক্রান্ত ব্যক্তি কিভাবে কোথা থেকে আক্রান্ত হয়েছেন তা বিস্তারিত জানা যায়নি।

অন্যদিকে দিল্লির নিজামুদ্দিন ফেরত হলদিয়ার দেভোগ এর এক ব্যক্তিকে হলদিয়া হাসপাতলে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। এই ব্যক্তি ২৪ তারিখ দিল্লি থেকে হলদিয়ায় ফেরার পরে যেখানে যাদের সঙ্গে মিশেছেন তাদের মধ্যে কয়েকজনকে শনাক্ত করে আইকেআর এর কারেন্টটাইন কেন্দ্রে রাখা হয়েছে। হলদিয়া হাসপাতাল সূত্রে এ খবর জানা গেছে। প্রত্যেকেরই মুখের সোয়াব পরীক্ষার জন্য কলকাতায় পাঠানো হয়েছে। তবে এই দুটি ঘটনার কথা সরকারি ভাবে এখনো স্বীকার করা হয়নি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here