ভাটপাড়ায় তৃণমূল নেতাকে লক্ষ্য করে গুলি, অল্পের জন্যে প্রাণে রক্ষা

আমাদের ভারত, ব্যারাকপুর, ১৯ জানুয়ারি: ভাটপাড়ায় ফের চললো গুলি। গুলি চলার ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ল ভাটপাড়ার পৌর এলাকার ৬ নং ওয়ার্ডে। ভাটপাড়াতে তৃণমূল নেতাকে লক্ষ্য করে গুলি চালালো দুষ্কৃতীরা। বুধবার সাত সকালে ভাটপাড়ার তৃণমূল
নেতাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনায় অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেলেন তৃণমূল নেতা অসীম রায় ওরফে বুলু।

ভাটপাড়া পৌর সভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল আহ্বায়ক তিনি। রোজকার মত বুধবার সকালে ভাটপাড়ার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কারবালা এলাকায় নিজের বাড়ির সামনে দাঁড়িয়েছিলেন পার্টি অফিসে যাওয়ার জন্য। সেই সময় তিন যুবক সাইকেল করে আসে এবং তার দিকে বন্দুক উঁচিয়ে ধরে বলে অভিযোগ। সেই সময় অসীমবাবু দুষ্কৃতীদের বন্দুকটি হাত দিয়ে সরিয়ে দিলে তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। কিন্তু গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। অসীমবাবুর কানের পাশ দিয়ে গুলি বেরিয়ে যায়। ফলে প্রাণে রক্ষা পান অসীম রায়। এরপর ওই দুষ্কৃতীরা তার মাথায় বন্দুকের বাঁট দিয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেয়। আহত অবস্থায় মাটিতে বসে যান তিনি এবং স্থানীয় বাসিন্দারা তাকে উদ্ধার করে ভাটপাড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। এরপর আহত তৃণমূল নেতা ভাটপাড়া থানায় গোটা বিষয়টি জানিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন।

এদিন আক্রান্ত তৃণমূল নেতা অসীম রায় বলেন,
“কিছু দিন ধরে আমার পেছনে লোক লাগানো হয়েছিল। আমি আজ বাড়ি থেকে বেরিয়ে পার্টি অফিসে যাওয়ার জন্য টোটো ধরতে আসতেই তিন জন দুষ্কৃতী আমার দিকে এগিয়ে আসে আর আমার বুকে বন্দুক ঠেকায় আর গুলি চালায়। তখন আমি ওদের বন্দুক হাত দিয়ে সরিয়ে দেওয়ায় গুলিটা আমার কানের পাশ দিয়ে বেরিয়ে যায়। ফলে আমি অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যাই। বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই এই গুলি চালিয়েছে। কারণ সামনে পৌর ভোট আর আমাকে সরাতে পারলে ৬ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপি সুবিধা লাভ করবে। আমরা আজ থানায় এসে সমস্ত বিষয়টা জানিয়ে অভিযোগ দায়ের করলাম।”

এই ঘটনার পেছনে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের জরিত থাকার অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে সাংসদ অর্জুন সিং পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, “তৃণমূলে এখন পুকুর ভরাট, তোলাবাজির টাকার হিসসা নিয়ে নিজেদের মধ্যেই প্রবল গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। তার থেকেই হয়ত এই গুলি চালনার ঘটনা ঘটেছে। এর সাথে বিজেপির কোনে যোগ নেই। আর এটাও হতে পারে নিজেরাই এসব ঘটনা সাজিয়েছে। কারণ সাইকেল নিয়ে কেউ গুলি করতে আসে না।” তবে এই সমস্ত ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ভাটপাড়া থানার পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here