মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে যুবশ্রী প্রকল্পের টাকা দান বালুরঘাটের এক মহিলার, দিলেন চার মাসের শিশুর জমানো সর্বস্বও

আমাদের ভারত, বালুরঘাট, ৬ এপ্রিল: করোনার আক্রমন থেকে শিশু সুরক্ষা নিশ্চিতে যুবশ্রী প্রকল্পের টাকা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিলেন বালুরঘাটের এক মহিলা। দিলেন চারমাসের শিশুর জমানো সর্বস্বও। দরিদ্র মহিলার এমন উদ্যোগকে কুর্নিশ সকলের। সোমবার শম্পা সরকার পাল নামে ওই মহিলা তাঁর চার মাসের শিশুর হাত দিয়ে গুরুজনদের আশীর্বাদের প্রাপ্ত অর্থও তুলে দিয়েছেন রাজ্য সরকারকে। এদিন বালুরঘাট জেলা প্রশাসনিক ভবনে জেলা শাসক নিখিল নির্মলের হাতে আর্থিক সাহায্য তুলে দেন ওই মহিলা।

বালুরঘাট শহর লাগোয়া চক্‌ভৃগুর সদরঘাটপাড়া এলাকার বাসিন্দা পেশায় মুহুরী গোপাল পালের স্ত্রী শম্পা সরকার পাল। পরিবারে আর্থিক স্বচ্ছলতা না থাকায় রাজ্য সরকারের মাধ্যমে যুবশ্রী প্রকল্পের ১৫০০ টাকা করে ভাতা পান ওই মহিলা। অবশ্য এবারে সেই টাকা সংসারের খরচে ব্যয় করেননি তিনি। করোনা মোকাবিলায় সম্পূর্ণ অর্থ স্টেট ইমারজেন্সি রিলিফ ফান্ডে তুলে দিয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয়, একই সাথে তাঁদের একমাত্র পুত্র সন্তানের জন্মে গুরুজনদের আশীর্বাদ হিসাবে পাওয়া ৯৫০ টাকাও এদিন ওই ছোট্ট শিশুর হাত দিয়ে তুলে দিয়েছেন জেলাশাসকের হাতে। নজিরবিহীন এই ঘটনায় আলোড়ন পড়েছে গোটা দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা জুড়ে।

শম্পা সরকার পাল জানিয়েছেন, দেশজুড়ে করোনা ভাইরাস মারণ আকার নিচ্ছে। ছোট ছোট শিশুদের নিরাপত্তার কথা ভেবে একজন মা হিসাবে তাঁর যুবশ্রী প্রকল্পের ভাতা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে তুলে দিয়েছেন। করোনা মোকাবিলায় গুরুজনদের দেওয়া তাঁর ছেলের আশীর্বাদের পাওয়া সম্পূর্ণ টাকাও দান করেছেন তিনি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here