মা দুর্গার ভাসানের সঙ্গে সঙ্গে তৃণমূলের বিসর্জন হয়ে যাবে: অর্জুন সিং

নীল বনিক, আমাদের ভারত, কলকাতা, ২৮ সেপ্টেম্বর: একুশের নির্বাচনে তৃণমূলের বিদায় নিশ্চিত। সোমবার উত্তর কলকাতার খান্নায় বিজেপির উত্তর কলকাতা জেলা আয়োজিত সাংবাদিক বৈঠকে একথা বলেন, ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। তিনি বলেন, তৃণমূল নেত্রী বুঝতে পেরে গিয়েছেন আর ক্ষমতায় ফিরতে পারবেন না। মা দুর্গার বিসর্জনের সঙ্গেই তৃণমূলের বিসর্জন হয়ে যাবে।

নবান্নে প্রশাসনিক রদবদল নিয়ে তাঁর কটাক্ষ, এখন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যসচিব হয়েছেন। উনি যে সরকারের সঙ্গে থাকেন সেই সরকারের পতন নিশ্চিত হয়। বুদ্ধবাবুর সঙ্গে দক্ষিণ ২৪ পরগণায় ভ্যান রিক্সায় গিয়েছিলেন। বুদ্ধ বাবুর সরকার চলে গিয়েছে। এবার উনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের মুখ্যসচিব হয়েছেন। নিশ্চিত ভাবে এই সরকারের পতন হবে বলে জানান অর্জুন সিং।

তিনি আরও বলেন, তৃণমূলের অনেক নেতা নেত্রী আছেন, যাঁরা বিজেপিতে যোগদান করার জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। তবে বিজেপি যাচাই করে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়াবে। আজ যদি বাছ বিচার না করে আমরা দরজা খুলে দিই তাহলে তৃণমূলের যে সে হুহু করে আমাদের দলে ঢুকে পড়বে।

প্রাক্তণ মুখ্যসচিব রাজীব সিনহাকে কেন পূর্নবাসন দিলেন মুখ্যমন্ত্রী? সেই প্রশ্নে অর্জুন সিং বলেন, ‘করোনা মহামারির সময় আড়াই হাজার কোটি টাকার স্বাস্থ্য দপ্তরের জিনিস কেনা হয়েছে কোনও টেন্ডার ছাড়াই। সবাইটাই রাজীব সিনহার নির্দশে হয়েছে। তাই ওনাকে প্রাইজ পোষ্টিং দিতে হবে। সেই জন্যই রাজীব সিনহাকে অবসরের পরও শিল্প উন্নয়ন নিগমের শীর্ষ পদে বসানো হয়েছে। আজকের সাংবাদিক বৈঠকে বিজেপির উত্তর কলকাতার জেলা কমিটির তালিকা ঘোষণা করা হয়। আগেই জেলা সভাপতি ঘোষণা করা হয়েছিল। এদিন বাকি ৮ জন সহ সভাপতি, ৩ জন সাধারণ সম্পাদক, ৮ জন সম্পাদকের নাম ঘোষিত হয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here