পার্থ গ্রেপ্তারের পর বড় রদবদল দিদির মন্ত্রিসভায়, সরানো ও কমানো হলো অনেকের দায়িত্ব, নতুন দায়িত্বের এলেন ৮ জন

শ্রীরূপা চক্রবর্তী
আমাদের ভারত, ৩ আগস্ট:
পার্থ চট্টোপাধ্যায় গ্রেপ্তারের পর নতুন করে মন্ত্রিসভা সাজালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্য সরকারের মন্ত্রিসভায় রদবদলের পর ভাগ করে দেওয়া হলো মন্ত্রীদের দায়িত্ব। ববি হাকিমের মতো একাধিক মন্ত্রীর দায়িত্ব যেমন কমানো হয়েছে। তেমনই নতুন দায়িত্বে আনা হয়েছে ৮ জনকে।

নতুন দায়িত্ব দেওয়া হয় বাবুল সুপ্রিয়কে। তাকে একই সঙ্গে দুটি দপ্তর দেওয়া হয়েছে। তার হাতে থাকছে পর্যটন ও তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তর। কিন্তু পুরনো মন্ত্রীদের মধ্যে অনেকেরই দপ্তরের রদবদল করা হলো, যেমন ফিরহাদ হাকিমের থাকা পরিবহন ও আবাসন দপ্তর নিয়ে নেওয়া হলো। আবাসন দপ্তরের অতিরিক্ত দায়িত্ব পেলেন অরূপ বিশ্বাস। পরিবহন দপ্তরের নতুন দায়িত্ব পেলেন স্নেহাশিস চক্রবর্তী।

অন্যদিকে, পার্থ চট্টোপাধ্যায় শিল্প ও বাণিজ্য দপ্তরের দায়িত্ব পেলেন শশী পাঁজা। পার্থর তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বাবুল সুপ্রিয়কে আর পরিষদীয় মন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়। অপরদিকে পূর্ত দপ্তরের দায়িত্ব মলয় ঘটকের থেকে নিয়ে নেওয়া হয়েছে। এই দপ্তরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে পুলক রায়কে। ইন্দ্রনীল সেন পেয়েছেন কারিগরি শিক্ষা দপ্তরের অতিরিক্ত দায়িত্ব। সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের পঞ্চায়েত দপ্তরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে প্রদীপ মজুমদারকে।

এছাড়া নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিককে সেচ দফতরের দায়িত্বে আনা হয়েছে, উদয়ন গুহর হাতে গেছে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর। প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন বিপ্লব রায় চৌধুরী। তিনি মৎস্য দপ্তরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী হয়েছেন। তাজমুল হোসেন হয়েছেন ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প দপ্তর ও বস্ত্র দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী। সত্যজিৎ বর্মন হয়েছেন শিক্ষা দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী, যে দপ্তর ছিল পরেশ অধিকারীর হাতে।

বুধবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রিসভার সদস্য হিসেবে নতুন ৮ জনের মুখ দেখা যায়। বুধবার বিকেলেই রাজ ভবনে শপথ নেন নতুন মুখরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here