পুজোর পরেই করোনার সুনামিতে হবে শয্যা সংকট, মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে সতর্কবাতা চিকিৎসকদের

রাজেন রায়, কলকাতা, ৯ অক্টোবর: মহালয়ার পর থেকেই ফের নিজস্ব দাপটে ফিরে এসেছে করোনা সংক্রমণ। বিপুল হারে মানুষ সংক্রামিত হচ্ছেন। দ্রুত নামছে সুস্থতার হার। এই অবস্থায় পুজোয় ঠাকুর দেখা নিয়ে একাধিক কোভিড নির্দেশাবলী দেওয়া হলেও তা প্রয়োগের জন্য সেভাবে সরকারি তরফে কোনও উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না। এই ধরনের দায়সারা মনোভাব প্রাণঘাতী হতে পারে বহু মানুষের। সেই কারণে কলকাতা চিকিৎসক সংগঠনের তরফে এবার চিঠি পাঠানো হল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। চিঠি পাঠিয়েছে ওয়েস্টবেঙ্গল ডক্টরস ফোরাম।

সেই চিঠিতে ডাক্তারবাবুরা বলেছেন দুর্গাপুজোয় কড়া বিধিনিষেধ জারি করুন। নাহলে বাংলায় পুজোর পড়ে করোনা সংক্রমণের সুনামি বইবে। আর তা হলে রাজ্যের হাসপাতালেও অত বেড মিলবে না। ইতিমধ্যেই হাসপাতালের বেড ৩৮ শতাংশের বেশি ভর্তি।

কেরল ও স্পেনের উদাহরণ দিয়ে বলা হয়েছে, ওনম উৎসবে কড়াকড়ি শিথিল করেছিল কেরল সরকার। তারপর দক্ষিণের রাজ্যটিতে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে বসেছে। স্পেনে ফুটবল ম্যাচে দর্শক ঢুকতে দিয়ে একই বিপত্তি ঘটেছে। বাংলায় তেমন যেন না হয়। মহালয়া ও বিশ্বকর্মা পুজোর পর থেকে বাংলায় সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। এখন থেকেই দুর্গাপুজো নিয়ে সতর্ক হতে হবে।স্বাস্থ্য দফতরের অন্যতম পরামর্শদাতা তথা কোভিড-১৯ বিশেষজ্ঞ কমিটির অন্যতম সদস্য ডাক্তার বিআর সৎপতি বলেছেন, আমরা সরকারকে বলেছি, ‘মানুষের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিতে। না হলে কিন্তু বিপদ এড়ানো যাবে না।’

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here