করোনাকে জয় করেও ঠাঁই ষ্টেশনে, পরে পুলিশের উদ্যেগে বাড়িতে

আমাদের ভারত, হাওড়া, ১৬ মে:
করোনাকে জয় করেও বাড়িতে থাকতে না পেরে ষ্টেশনে রাত কাটাতে হল কলকাতা কর্পোরেশনের কর্মী পান্নালাল দে কে। অবশেষে শনিবার দুপুরে পুলিশের উদ্যেগে নিজের বাড়িতে ফিরতে পেরেছেন তিনি।

জানা গেছে তপসিয়া পাম্পিং ষ্টেশনের কর্মী পান্নালাল দে ২ মে জ্বরের উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর ৩ মে তাঁর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর তাঁকে বাঙ্গুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পান্নালাল দে জানান ১২ মে তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পর ১৩ মে তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। সেখান থেকে তিনি নিজের বাড়ি নলপুর গ্রামপঞ্চায়েতের দাদপুরে যান। তিনি অবিবাহিত বাড়িতে কেউ নেই তাই গ্রামের এক বন্ধুর বাড়িতে রাত কাটান। কিন্তু পরের দিন সকালে গ্রামবাসীরা আপত্তি জানায়। তাঁকে গ্রাম ছাড়তে বাধ্য করে। তাঁর অভিযোগ, গ্রাম থেকে বেরিয়ে আসার পর বিভিন্ন জায়গায় গেলেও কোথাও তার ঠাঁই না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত সাঁকরাইল ষ্টেশনে আশ্রয় নিতে হয়।

তিনি জানান, ষ্টেশনে আশ্রয় নেওয়ার পর ষ্টেশনের আশেপাশে লোকজন যাতায়াত বন্ধ করে দেয় ফলে খাবার সংগ্রহ করতে সমস্যায় পড়তে হয় তাঁকে। পান্নালাল দে জানান, পুলিশ কর্মীরা তাঁকে খাবার দিলেও সেটা খুব সামান্য ছিল। এদিন তিনি প্রশ্ন করেন রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে করোনা জয়ীদের সাদরে গ্রহণ করলেও কেন তাঁর প্রতি এই অবিচার।

এদিকে শনিবার সকাল থেকেই বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের কর্মীদের পান্নালালবাবুর কাছে যাওয়ার খবর পুলিশের কাছে পৌঁছানোর পর দুপুরে মানিকপীড় ফাঁড়ির পুলিশ পান্নালাল বাবুকে তাঁর বাড়িতে পৌঁছে দিয়ে আসেন‌। ষ্টেশনে অনিদ্রায় রাত কাটানোর পর অবশেষে শনিবার দুপুরে বাড়ি ফিরতে পেরে খুশি কলকাতা কর্পোরেশনের ওই কর্মী।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here