৭ দিনের জন্য লকডাউন দেখে তারপরই পরবর্তী সিদ্ধান্ত : মুখ্যমন্ত্রী

রাজেন রায়, কলকাতা, ৮ জুলাই: বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা থেকে রাজ্যের সব জেলার কনটেনমেন্ট জোনগুলিতে চালু হতে চলেছে কড়া লকডাউন। রাজ্যে ঊর্ধ্বগামী করোনা সংক্রমণের নিরিখে মঙ্গলবারই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্ট করে জানিয়ে দিলেন, আপাতত প্রাথমিকভাবে ৭ দিনের জন্য লকডাউন চলবে৷ ৭ দিন পরে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে ৷

নবান্ন সূত্রে খবর, রাজ্যের করোনা মানচিত্রে সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে রয়েছে কলকাতা, দুই চব্বিশ পরগণা এবং হাওড়া জেলা। এই চারটি জেলা থেকেই সারা রাজ্যে সংক্রমণ বেশি ছড়িয়ে পড়ছে। তাই এই চারটি জেলার সংক্রমণ ও মৃত্যু কমানো আপাতত প্রধান লক্ষ্য। বুধবার সরকারি ওয়েবসাইট থেকে সমস্ত জেলার চূড়ান্ত কনটেনমেন্ট জোনের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ছাড়া রাজ্যে সব জেলার প্রশাসনের হাতে এই তালিকা পৌঁছে দেওয়া হবে, যাতে প্রত্যেক জায়গায় কনটেনমেন্ট জোন ভিত্তিক কার্যকরী করা যায়।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এ এবং বি বাফার জোন মিলে কনটেনমেন্ট জোন কয়েকটি ছোট ছোট জায়গা করে কনটেনমেন্ট করা হয়েছে৷ কোনও এলাকায় বেশি আক্রান্ত থাকলেই কনটেনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করতে হবে। এ বিষয়ে রাজ্য প্রশাসন কড়া নজর রাখছে।’

কনটেনমেন্ট জোনে বন্ধ থাকবে সমস্ত সরকারি-বেসরকারি অফিস, কারখানা এবং ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান৷ কন্টেইনমেন্ট জোনগুলিতে বন্ধ থাকবে সবরকম যানবাহন চলাচল৷ শুধুমাত্র অত্যাবশ্যকীয় পণ্য এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দোকান খোলা থাকবে বলে জানা গিয়েছে৷ অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবাও চালু থাকবে৷ প্রয়োজনে বাসিন্দাদের বাজার ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য পৌঁছে দেবে স্থানীয় প্রশাসন ৷

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here