গোপালনগরে বিদ্যুতের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ

সুশান্ত ঘোষ, আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগণা, ২৭ মে: জেলাজুড়ে জল ও বিদ্যুতের দাবিতে বিক্ষোভ লেগেই রয়েছে। বুধবার উত্তর ২৪ পরগনার গোপালনগর থানার কদমতলা এলাকায় বনগাঁ চাকদা রোড টানা তিন ঘন্টা অবরোধ করেন গ্রামের কয়েকশো বাদিন্দা। পুলিশের শত অনুরোধেও অবরোধ না তোলার জন্য গ্রামবাসীরা অনড় ছিলেন। শেষ পর্যন্ত বিদ্যুত সংযোগকারীদের আটকে কাজ শুরু করার পর অবরোধ তুলে নেয় বাসিন্দারা।

টানা ৮ দিন বিদ্যুৎ না পেয়ে গোপালনগরের কদমতলা সহ ৯টি গ্রামের মানুষ দিশাহারা। বয়স্ক ও অসুস্থ মানুষরাও সমস্যায় পড়েছেন। এ দিন কয়েকশো মানুষ পঞ্চায়েত সদস্যদের নিয়ে অবরোধ শুরু করেন সকাল ৯টায়। কদমতলা মোড়ে ওই অবরোধে শামিল হয়েছিলেন ভুক্তভোগী বহু মানুষজন।, পঞ্চায়েত সদস্য জীবনকান্তি মজুমদার বলেন, “অস্থায়ী ভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া প্রয়োজন ছিল। স্থানীয় মানুষজন নিজেরা পকেটের টাকা দিয়ে গাছ কাটাচ্ছেন। সিইএসসির কোনও দায়িত্ব নেই? বিদ্যুৎ সংযোগকারীদের সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করলে, দেখছি বলে ফোন রেখে দেয়”।

স্কুল শিক্ষক মোহনলাল চক্রবর্তী বলেন, “আমার তো মনে হয় বনগাঁ মহকুমায় প্রশাসন বলে কিছু নেই। বিদ্যুৎ অফিসে বারবার জানিয়েও কোনও ফল হচ্ছে না। সেক্ষেত্রে তো প্রশাসনের হস্তক্ষেপ করা উচিত ছিল। এছাড়া এতো বড় দুর্যোগে পঞ্চায়েত বা সরকারের কোনও আধিকারিক খবর নেয়নি গ্রামের মানুষদের”।

প্রশাসনের এক পদস্থ কর্তা বলেন,”পুলিশ ও প্রশাসনের তরফে বিদ্যুৎ অফিসের সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করা হয়েছে। গাছ পড়ে, বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে গিয়েছে বহু জায়গাতেই। আসলে বহু জায়গাতেই একই পরিস্থিতি। কাজের পরিধি এত বড়, ওঁরা সামলে উঠতে পারছেন না।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here