হেমতাবাদে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে কাঁটাতারের ওপারের পরিজনদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে মারধরের অভিযোগ উঠলো বিএসএফের বিরুদ্ধে

স্বরূপ দত্ত, আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ২ ডিসেম্বর: দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর অবশেষে কাঁটাতারের ওপারের পরিজনদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে বিএসএফের লাঠিতে মার খেতে হল শিশু থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষদের। বাদ পড়েনি মহিলারাও। এমনই ছবি ধরা পড়লো উত্তর দিনাজপুর জেলার হেমতাবাদ ব্লকের ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকার মাকরা গ্রামে।

বাংলাদেশের মানুষরা কাঁটাতারের বেড়ার কাছে আসতে পারলেও ভারতের সাধারণ মানুষরা আসতে না পারায় তাদের মন ভারাক্রান্ত হয়ে পড়ে। জোর করে সাধারণ মানুষজন তারকাঁটার সামনে যেতে গেলে বিএসএফ তাদের উপর লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। বিএসএফের লাঠির আঘাত লাগে এক শিশুর। ক্ষিপ্ত হয়ে উত্তেজিত জনতা বিএসএফের ওপর চড়াও হয়ে বিএসএফের দুই জওয়ানকে মারধর করে। এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। শেষমেশ দুই বাংলার মিলন মেলা শুরু হয়।

প্রসঙ্গত, শতবর্ষ প্রাচীন বাংলাদেশের ঠাকুরগাঁও জেলার গোবিন্দপুরে এক কালী পুজোকে কেন্দ্র করে প্রতি বছর এই মিলন মেলার আয়োজন হয়। বর্তমানে কাঁটাতারের বেড়ার ওপারে এই পুজো নিয়ম নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করছেন সেখানকার হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ। এই পুজোকে কেন্দ্র করে দেশ ভাগের আগেও মেলা হতো এখনও মেলা হয়। বাংলাদেশের সাথে সাথে কাঁটাতারের এপারেও বসে মেলা। দেশ ভাগ হয়ে যাবার ফলে কাঁটাতারের বাঁধন পড়েছে। ফলে বাড়ির পাশে থাকা আত্মীয়ের সঙ্গে সর্বক্ষণের সাক্ষাতেও বাঁধন পড়েছে। কিন্তু এই পুজোকে কেন্দ্র করে মেলার দিন নিজের আত্মীয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ কেউ হাতছাড়া করতে রাজি নয়। তাইতো শুধু হেমতাবাদ ব্লক নয়, গোটা উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর, বিহার এবং শিলিগুড়ি থেকেও প্রচুর লোকের সমাগম হয় হেমতাবাদ ব্লকের ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে। ভারতের বহু জায়গার থেকে ওপারের পরিজনদের দেখার জন্য সীমান্ত এলাকায় ছুটে আসেন। ওপারের পরিজনদের দেখে কাঁন্নায় ভেঙে পড়ে এপারের পরিজনরা। খাবার থেকে শুরু করে বিভিন্ন জিনিসপত্র ছোড়াছুড়ি হয় কাঁটাতারের বেড়ার উপর দিয়ে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here