প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় বাড়ির জন্য টাকা চাওয়ার অভিযোগ পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে

আশিস মণ্ডল, রামপুরহাট, ৮ জুন: প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার বাড়ি পেতে দিতে হচ্ছে মোটা অঙ্কের টাকা। দাবি মতো টাকা না দিলে দেওয়া হচ্ছে না সরকারি বাড়ি। প্রতিবাদে বিডিও অফিসে বিক্ষোভ দেখালেন বেশ কিছু প্রাপক। এক সময় ব্লক অফিসে প্রধান গেলে তাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে প্রাপকরা। প্রধান ও তাঁর সাঙ্গপাঙ্গদের হুমকির পর ফিরে যান তারা।

ময়ূরেশ্বর ১ নম্বর ব্লকের বড়তুড়িগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েতের সনকপুর গ্রামে ৪০ জনের প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা বাড়ির তালিকায় নাম উঠেছে। অভিযোগ বাড়ি পেতে পঞ্চায়েত প্রধান কৈলাসপতি বায়েন ফোনে দশ হাজার টাকা করে দাবি করছে। না দিলে বাড়ি দেওয়া হচ্ছে না। এই অভিযোগ তুলে সোমবার ময়ূরেশ্বর ১ নম্বর ব্লকে বিক্ষোভ দেখান বাড়ি প্রাপকরা। তাদের দাবি, ক্রমিক সংখ্যা ধরে বাড়ি দিতে হবে। অভিযোগ টাকা না দেওয়ায় ক্রমিক সংখ্যা টপকে অন্যদের বাড়ি পাইয়ে দেওয়া হচ্ছে।

গ্রামের বাসিন্দা নুরুল হাসান বলেন, “প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় বাড়ি দেওয়ার ক্ষেত্রে ক্রমিক সংখ্যা মানা হচ্ছে না। পরে নাম আছে তাদের আগে বাড়ি দেওয়া হচ্ছে। প্রধানকে দশ হাজার টাকা না দেওয়ায় আমাদের বঞ্চিত করা হচ্ছে। তাই আমরা বিডিও অফিসের দ্বারস্থ হয়েছি। কিন্তু বিডিওর কাছ থেকেও কোনও সদুত্তর পেলাম না”।

প্রধান কৈলাশপতি বায়েন বলেন, “অভিযোগ ভিত্তিহীন। আমরা প্রত্যেকের বাড়িতে গিয়ে আবেদন করেতে বলছি। কিন্তু কেউ যদি বাড়িতে না থাকেন তাহলে আমাদের কিছু করার নেই। তবে ক্রমিক সংখ্যা অনুযায়ী বাড়ি দেওয়া হচ্ছে”।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here