করোনা আক্রান্ত রোগীদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ায় অ্যাম্বুলেন্স চালককে বেধড়ক মার

স্নেহাশীষ মুখার্জি, আমাদের ভারত, নদিয়া, ৫ মে: করোনা আতঙ্ক এতটাই ছড়িয়েছে যে রোগী না হয়েও মার খেলেন অ্যাম্বুলেন্সের চালক। কারণ তিনি করোনা রোগীদের হাসপাতালে অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যেতেন। বাড়ি ফেরার পর তাকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দাদের বিরুদ্ধে। অ্যাম্বুলেন্সের চালককে শান্তিপুর হাসপাতালে জখম অবস্থায় ভর্তি করা হয়।

জানাগেছে, শান্তিপুরের বড় জিয়াকুঁড়ের আরবান্দি ১ নম্বর পঞ্চায়েতের বাসিন্দা অসিত সরকার কল্যাণী কার্নিভাল নার্সিংহোমের অ্যাম্বুলেন্সের চালক। করোনা রোগীদের হাসপাতালে অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যেতেন তিনি। গত ১ তারিখ নার্সিংহোম থেকে ছুটি নিয়ে তিনি তার শান্তিপুরে নিজের বাড়িতে আসেন। অভিযোগ, সেই সময় এলাকার কয়েকজন যুবক তার ওপর চড়াও হয়। কোভিড ১৯ এর ডিউটি করলে এলাকায় ঢোকা যাবে না বলে তাকে শাসানো হয় বলে অভিযোগ। অ্যাম্বুলেন্সের চালক অসিত সরকার এই ঘটনার প্রতিবাদ করলে উক্ত ব্যক্তিরা তাকে এবং তার বাবাকে লাঠি দিয়ে মারধর করে বলে অভিযোগ। বেধড়ক মারধরে অ্যাম্বুলেন্সের চালক অসিত সরকার অচৈতন্য হয়ে পড়ে। পরে তাকে শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে শান্তিপুর থানার পুলিশ।

এ প্রসঙ্গে রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান অজয় দে জানান, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই কঠিন পরিস্থিতিতে উনি মানুষের সেবা করছেন, কোথায় ওনাকে ওরা সাহায্য করবে তা না করে তার উপর আক্রমণ, এটা অত্যন্ত নিন্দনীয়।

এ প্রসঙ্গে রানাঘাট দক্ষিণের সাংসদ জগন্নাথ সরকার জানান, সে তার নিজের বাড়িতে এসেছে কার কী বলার আছে। এটা অত্যন্ত নিন্দনীয় ঘটনা। কাউকে না কাউকে অ্যাম্বুলেন্সে করে করোনা আক্রান্ত রোগীদের নিয়ে তো যেতেই হবে। যদি এরকম চলতে থাকে তাহলে একদিন রোগী নিয়ে যাওয়ার লোক পাওয়া যাবে না।
অভিযুক্তরা পলাতক। এখনো পর্যন্ত এই ঘটনায় কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here