রাজ্যের জিডিপি ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধির দাবিতে এবার রাজ্যপালকে চিঠি অমিত মিত্রের

রাজেন রায়, কলকাতা, ৩০ সেপ্টেম্বর: রাজ্যে গত বেশ কয়েক বছর ধরে বিপুল খরচ করে বিশ্ব বাংলা বাণিজ্য সম্মেলন করা হলেও তাতে যে রাজ্যের কোনও লাভই হয়নি, এমন দাবি বারবারই তুলেছিলেন রাজ্যপাল। রাজ্য সরকারকে চিঠি দিয়ে সম্মেলনে খরচের হিসাবও চেয়েছিলেন তিনি। যদিও তিনি এই তথ্য চেয়ে পাঠালেও এই প্রসঙ্গে দীর্ঘদিন নীরব ছিল রাজ্য প্রশাসন।

সম্প্রতি জবাবি চিঠি পাঠিয়ে পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র বলেন,‘আমরা ২০১১ সালে আসার পরে সরকারের ওপর অস্বাভাবিক করের বোঝা ছিল। তার পরও রাজ্যে অভূতপূর্ব হারে মূলধন বৃদ্ধি হয়েছে। রাজ্যে ছোট, মাঝারি ও বৃহৎ শিল্পে একের পর এক বিনিয়োগ এসেছে। যার ফলে সরকারি রাজস্ব ও কর্মসংস্থানও বেড়েছে।’

এই পরিস্থিতিতেই বাণিজ্য সম্মেলন শুরু করার ভাবনা আসে রাজ্য সরকারের।পশ্চিমবঙ্গের বাণিজ্য সম্মেলন তার উদ্ভাবনী বৈশিষ্ট্যের জন্য দেশ ও বিদেশে বাহবা কুড়িয়েছে। অার এই শিল্প সম্মেলনের জেরেই ২০১৫ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত বিশ্ব বাংলা বাণিজ্য সম্মেলনে ১২৩২৬০৩ কোটি টাকা বিনিয়োগের প্রস্তাব এসেছে। ২০১৫ – ২০১৮ সালের মধ্যে যে প্রস্তাব এসেছে তার ৫০.২৭ শতাংশ কার্যকর হওয়ার পথে এগোচ্ছে। ২০১৯ সালের সম্মেলনের আসা প্রস্তাবের মধ্যে ৭১,৬৪৬ কোটি টাকার প্রস্তাব কার্যকর হওয়ার পথে। আর এর ফলেই ২০১০ – ১১ অর্থবর্ষে পশ্চিমবঙ্গে জিডিপি-র পরিমাণ যেখানে ৪.৬ লক্ষ কোটি টাকা ছিল, তা ২০১৯ – ২০ সালে ১২.৫ লক্ষ কোটি টাকা হয়েছে। একই ভাবে বেড়েছে রাজস্ব সংগ্রহের পরিমাণও। ২০১০ – ১১ সালে ২১২২৮ কোটি থেকে ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে ৬৫,৮০৬ কোটি টাকা রাজস্ব সংগ্রহ হয়েছে। রাজ্যে বিপুল কর্মসংস্থান তো হয়েইছে, এমনকি ২০২১ সালের আগে আরও ৫ লক্ষ কর্মসংস্থান হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here