করোনা এক্সপ্রেসই তৃণমূল সরকারকে বাংলার বাইরে পাঠাবে: মমতাকে কটাক্ষ শাহের

শ্রীরূপা চক্রবর্তী, আমাদের ভারত, ৯ জুন: করোনা স্পেশালেই তৃণমূলকে রাজ্যের মানুষ বাংলা ছাড়া করবে। পশ্চিমবঙ্গের জন্য করা বিজেপির প্রথম ভার্চুয়াল জনসভা থেকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে এভাবেই আক্রমণ শানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য চালানো শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করোনা স্পেশাল বলে অপমান করেছেন। আর এই অপমান কখনোই বাংলার মানুষ মেনে নেবে না। করোনা স্পেশালেই তৃণমূলের বিদায় হবে বলে ভার্চুয়াল জনসভা থেকে কটাক্ষ করলেন বিজেপির চানক্য।

শাহ বলেন পরিযায়ীদের রাজ্যে রাজ্যে পৌঁছাতে কেন্দ্র শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চালানো শুরু করে। কিন্তু তার অভিযোগ এই পরিযায়ীদের রাজ্যে ফেরাতে ইচ্ছুক ছিলনা বাংলার সরকার। পরিযায়ীদের জন্য কেন্দ্রের তরফে দেশজুড়ে যত শ্রমিক স্পেশাল এক্সপ্রেস চালানো হয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে কম সংখ্যক ট্রেন দাবি করেছিল মমতা সরকার। উপরন্তু পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য চলা ট্রেনকে করোনা এক্সপ্রেস বলে অপমান করেছেন মুখ্যমন্ত্রী বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তাই এই করোনা এক্সপ্রেসই মমতা সরকারকে বাংলার বাইরে পাঠাবে বলে কটাক্ষ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

মমতাকে বিঁধতে গিয়ে অমিত শাহ বলেন, খুব তাড়াতাড়ি বাংলায় পরিবর্তন আসতে চলেছে। বাংলার মানুষ এই পরিবর্তনে সামিল হবে। বাংলার জন্য করা এই প্রথম জনসংবাদ র্যালি বিজেপি নেতা কর্মীদের জন্যে এভাবেই ২১-র নির্বাচনের সুর বেঁধে দিলেন অমিত শাহ।
সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে রাজ্যের মানুষের কাছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নেতৃত্বাধীন তৃণমূল সরকারকে হটানোর ডাক দিলেন বিজেপি চাণক্য।

এদিন আক্রমণাত্মক সুরে একের পর এককটাক্ষ ছুড়ে দেন মমতা বন্দোপাধ্যায় সরকারের বিরুদ্ধে। অভিযোগ করেন তৃণমূল সরকার ইচ্ছাকৃত কেন্দ্রের নানা সুবিধা থেকে পশ্চিমবঙ্গের মানুষকে বঞ্চিত করেছে। কৃষকদের বঞ্চিত করেছে প্রধানমন্ত্রী কৃষক কৃষক যোজনার টাকা পাওয়া থেকে। আয়ুষ্মান ভারতের মত স্বাস্থ্য প্রকল্প থেকে বিনামূল্যে চিকিৎসা পাওয়ার সুযোগ থেকেও রাজ্যবাসীকে বঞ্চিত করেছে তৃণমূল সরকার বলে অভিযোগ করেন অমিত শাহ। তিনি বলেন, মোদী রাজ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠবেন,এই ভয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলিকে চালু করতে দেননি বাংলায়।

এই দিনের সভা থেকে বিজেপির এই পোড়খাওয়া নেতা একরকম রণ-হুঙ্কার দিয়ে বাংলার মানুষকে পরিবর্তনে সামিল হবার আহ্বান জানান। সভামঞ্চ থেকে গত ছয় বছরে মোদী সরকারের একের পর এক কাজের খতিয়ান তুলে ধরেন অমিত শাহ। পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তিনি বলেন গত ১০ বছরে তৃনমূল সরকার কি কাজ করেছেন তার খতিয়ান দিক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এছাড়াও তিনি বলেন, বাংলার পরিবর্তন আটকাতে পারবেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের প্রতি তোষণ করতে গিয়ে সিএএ-এর বিরোধিতা করেছে তৃণমূল। শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিয়েছে মোদী সরকার। অথচ তার বিরোধিতা করেছে তৃণমূল। ভোট বাক্সে তার প্রতিফলন হবে। বাংলার ভোটার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাংলার রাজনৈতিক শরণার্থী করে দিয়ে বিদায় জানাবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here