জীবে দয়া করতে গিয়ে বিপদের সম্মুখীন হচ্ছেন একজন পশুপ্রেমী

বিশ্বজিৎ রায়, হাওড়া, ১৪ মে: রামরাজাতলা অম্বিকা কুন্ডু লেনের বাসিন্দা প্রদীপ লাহিড়ী। গত ১২ বছর ধরে নিজের জায়গায় ‘এসো বান্ধু’ নামে একটি পশুর আশ্রয় চালাচ্ছেন। তাঁরর কাছে ৭০টিরও বেশি বিড়াল, ৯টি খরগোশ এবং ৩৫টি কুকুর রয়েছে। বার্ধক্যের কারণে তাদের বেশিরভাগ অসুস্থ, আবার কিছু প্রতিবন্ধী ছিল। তাদের সবাইকে রাস্তা এবং বিভিন্ন জায়গা থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসা এবং যত্ন-দিয়ে সুস্থ করে তুলছেন। যদি রাস্তায় কোনও আহত প্রাণী দেখতে পান তৎক্ষণাৎ প্রদীপবাবু নিজের আশ্রয়ে নিয়ে আসেন এবং পশুচিকিৎসক হিসাবে যথাযথ চিকিৎসা করে তারপরে সম্পূর্ণ নিরাময়ের পরে তাকে একই জায়গায় ছেড়ে দেন। এখনও ১২-১৫টি প্রাণী রয়েছে যারা চিকিত্সাধীন।
আবার রাস্তায় ঘুরে ঘুরে কুকুরদের খাবার পৌঁছে দেন। এই লকডাউনের সময় সংখ্যাটি ৮৫০ হয়ে গেছেI এই সময় এই অবলা প্রাণীদের দায়িত্ব তুলে নিয়েছেন প্রদীপবাবু নিজের ঘাড়ে। নিজের রোজগারের পয়সা দিয়ে নিজের তিনতলা বাড়িটিকে এস বন্ধু নামে আশ্রয়টির পরিচালনা করছেন সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং সুরক্ষা স্বচ্ছতা বজায় রেখে।

এটি এমন একটি আশ্রয় যেখানে সমস্ত প্রাণী বিনা মূল্যে চিকিত্সা এবং খাবার পাচ্ছে। তবে এখন কিছু প্রতিবেশী অভিযোগ করছে তাদের ব্যক্তিগত অসুবিধার জন্য। এই পরিস্থিতিতে আশ্রয়টি বন্ধ করে দিলে অবলা প্রাণীগুলো চিকিৎসা এবং খাদ্যের অভাবে মারা যাবে। প্রতিবেশিদের বিরোধিতায় তিনি অনেকটাই হতাশ।

বারবার আবেদন জানিয়েছেন এলাকার কাউন্সিলর থেকে শুরু করে পশুপ্রেমী এবং প্রশাসনের কাছে। কোনও জায়গা থেকে কোনরকম সাহায্য না পেয়ে অনেকটাই হতাশ প্রদীপবাবু। আর্তদের জন্য এই পরিষেবা চালিয়ে যেতে প্রদীপবাবুর কাতর আবেদন দয়া করে এগিয়ে আসুন এবং এই ক্ষেত্রে আমাকে সাহায্য করুন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here