শ্রুতি ও ছন্দের বার্ষিক অনুষ্ঠান

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৬ ডিসেম্বর: মেদিনীপুর শহরের অন্যতম আবৃত্তি ও শ্রুতিনাটক প্রশিক্ষণ সংস্থা শ্রতি ও ছন্দের বার্ষিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। একক-দ্বৈত-সমবেত আবৃত্তি, কবিতার কোলাজ, আঞ্চলিক কবিতা আবৃত্তি, শ্রুতিনাটক, নৃত্য ও সঙ্গীতের মাধ্যমে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা উপহার দিলেন শ্রুতিও ছন্দের কলাকুশলীদের পাশাপাশি অতিথি শিল্পীরা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনার পাশাপাশি স্বাগত ভাষণ দেন শ্রুতি ও ছন্দের কর্ণধার রত্না দে ও নরোত্তম দে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্য অতিথিদের উপস্থিতিতে প্রদীপ জ্বালিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট সংস্কৃতিপ্রেমী তথা অধ্যক্ষা রত্না দের মা স্বপ্না সেন। উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী জয়ন্ত সাহা, কলকাতার বিশিষ্ট নাট্যকার অনুপম ঘোষ, মীরাক্কেল খ্যাত শিল্পী দেবাশীষ দন্ড, রবীন্দ্র গবেষক বিবেকানন্দ চক্রবর্তী, লোকসংস্কৃতি গবেষক মধুপ দে, বাচিক শিল্পী অমিয় পাল, সংস্কৃতিপ্রেমী শম্ভুনাথ চ্যাটার্জি, বাচিক শিল্পী  দেবাশীষ চক্রবর্তী, রবীন্দ্র স্মৃতি সমিতির সম্পাদক লক্ষণ ওঝা, সাহিত্যিক বিদ্যুৎ পাল, সাহিত্যিক প্রদীপ দেব বর্মণ, নাট্যব্যক্তিত্ব প্রণব চক্রবর্তী, বাচিক শিল্পী মালবিকা পাল, সঙ্গীত শিল্পী হায়দার আলি, সহকারী প্রধান শিক্ষক সুব্রত মহাপাত্র, বাচিক শিল্পী কৌস্তুভ বন্দ্যোপাধ্যায়, সময় বাংলার জয়ন্ত মন্ডল সহ অন্যান্য বিশিষ্ট জনেরা।


 
অতিথি শিল্পী হিসেবে দর্শকদের মাতিয়ে রাখেন শিল্পী দেবাশীষ দন্ড। মনোজ্ঞ নৃত্যানুষ্ঠান পরিবেশন করেন বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী শাশ্বতী শাসমল, তপস্বিনী ভট্টাচার্য, অর্পিতা মন্ডল, তিয়াসা মুখার্জি, রুবি রায়, মৌমিসা রায় সহ অন্যান্যরা।  অতিথি সংগঠন হিসেবে প্রশিক্ষিকা ভারতী বন্দ্যোপাধ্যায় তত্ত্বাবধায়নে মনোজ্ঞ সঙ্গীতানুষ্ঠান পরিবেশন করে ওঁকার মিউজিক সার্কেলের  শিক্ষার্থীরা। একদিনের অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সমাজসেবা মূলক কাজের সাথে যুক্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। এছাড়াও এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিপ্রেমী, কান্তা বসু, সুদীপ কুমার খাঁড়া, মণিকাঞ্চন রায়, ওয়াসিম আহমেদ, সুশান্ত ঘোষ সহ অন্যান্য বিশিষ্ট জনেরা। ছিলেন মেদিনীপুর বাচিক শিল্পী সংসদের সদস্য-সদস্যাগণ। দর্শক-শ্রোতাদের পরিপূর্ণ রবীন্দ্র নিলয় প্রেক্ষাগৃহে অনুষ্ঠিত গোটা অনুষ্ঠান ছিল মনোগ্রাহী ও নজরকাড়া। অনুষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হওয়ায় উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানান অধ্যক্ষা রত্না দে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here