৪০০০ মৃত্যুর গণ্ডি পার! ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত আরও ৩২১১, মৃত ৫৮, সুস্থ ৩০৮৪

রাজেন রায়, কলকাতা, ১৪ সেপ্টেম্বর: সংক্রমণ যেন কিছুতেই নিজস্ব গতিতে বাড়তে দিচ্ছে না সুস্থতার হারকে। আগে যেখানে প্রতি দু’দিন অন্তর ১% করে সুস্থতার হার বৃদ্ধি হত, সেখানে গত ৪ দিন ধরে ৮৬ শতাংশেই আটকে গিয়েছে সুস্থতার হার। পাশে দশমিকের ওপারে সামান্য হেরফের হলেও তা নিতান্তই নগণ্য। একই সঙ্গে এদিন রাজ্যে করোনার জেরে মৃত্যু সংখ্যা ৪ হাজারের গণ্ডি পেরোল। উল্লেখ্য, গতকালের তুলনায় সংক্রমণ চারজনের কমলেও মৃত্যুর সংখ্যায় কোনও পরিবর্তন হয়নি। তবে সুস্থদের সংখ্যা গতকালের তুলনায় ৪২ জন বেড়ে গিয়েছে।

সোমবারের বুলেটিন অনুযায়ী, ফের রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় নতুন সংক্রমণের হদিশ ৩২১১ জনের, মৃত্যু ৫৮ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৩০৮৪ জন। তবে
তবে সুস্থতার হার খুব সামান্য বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৬.৫৫ শতাংশ।

২৪ ঘন্টায় ৩২১১ জন নতুন আক্রান্তে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২০৫৯১৯ জন। এদিন আরও ৫৮ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৪০০৩ জনের। ২৪ ঘন্টায় আরও ৩০৮৪ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ১৭৮২২৩ জন।

এদিনও অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনাতে ৫৩৬ জন, কলকাতায় ৪৮১ জন, পূর্ব মেদিনীপুরে ২৭৯ জন, হুগলিতে ২৪২ জন, পশ্চিম মেদিনীপুরে ২৩৪ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ২২৪ জন, নদিয়ায় ১৪১ জন, দার্জিলিংয়ে ১২২ জন, পশ্চিম বর্ধমানে ১২১ জন সুস্থ হয়েছেন। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ২৩৬৯৩ জন। এ দিন হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে ৬৯ জন।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৭৬টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্ট করা হল ২৫১৭৫৯৫ জনের। যার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে রেকর্ড সংখ্যক ৪৭৫৩৭ জনের। রাজ্যের ৯২টি কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতাল, ৩৭টি সরকারি এবং ৫৫টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১২৬৭৫টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ১২৪৩ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৭৯০টি। তার মধ্যে মাত্র ৩২.১৬ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ২৪৯২ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ১০৭৫০৫ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৭১২৭০ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৫৩৬৬১৩ জনকে। রাজ্যের ২০০টি সেফ হোমে ১১৫০৭টি বেড রয়েছে এবং তাতে ১৭০২ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের মৃত্যু হিসেবে বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, এদিন রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫৮ জনের। এ দিন কলকাতায় মৃত্যু ১৬ জনের, উত্তর পরগনায় মৃত্যু ১০ জনের, হাওড়ায় মৃত্যু ৬ জনের। এছাড়া হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনাতে ৫ জন করে, নদিয়ায় ৩ জন, কোচবিহার, পুরুলিয়া ও পূর্ব মেদিনীপুরে ২ জন করে আর আলিপুরদুয়ার, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, বাঁকুড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব বর্ধমান ও পশ্চিম বর্ধমানে ১ জন করে মোট আরও ২৬ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়া এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনায় ৫৫৯ জন, কলকাতায় ৫৫৩ জন, পশ্চিম মেদিনীপুরে ২৬৩ জন, হুগলিতে ২৬১ জন, দার্জিলিংয়ে ১৪৯ জন, হাওড়ায় ১৪৫ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১৪৪ জন, পূর্ব মেদিনীপুরে ১৩৮ জন, বাঁকুড়ায় ১২৯ জন, মুর্শিদাবাদে ১০৩ জন ও নদিয়ায় ১০২ জনের উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিনও সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের সব জেলাতেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here