চিন থেকে নিজেদের উৎপাদন কেন্দ্র ভারতে সরিয়ে আনতে পারে অ্যাপেল, হতে পারে ৪ কোটি ডলার বিনিয়োগ

আমাদের ভারত, ১৬ মে : করোনা আবহে দুনিয়াজুড়ে ব্যবসা-বাণিজ্য এক রকম ধুঁকছে। এই পরিস্থিতিতে বহু বড় বড় সংস্থা চিনের ওপর থেকে নিজেদের নির্ভর নির্ভরশীলতা কমিয়ে ফেলতে চাইছে। অনেকেই চিন থেকে নিজেদের কাজকর্ম গুটিয়ে ভারতকে উৎপাদন কেন্দ্র হিসেবে বেছে নিতে চাইছে। এবার সেই তালিকায় নতুন নাম আমেরিকার তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা অ্যাপেল। চিন থেকে উৎপাদন ব্যবস্থার কুড়ি শতাংশ ভারতে সরিয়ে আনার পরিকল্পনা করছে তারা বলে জানা গেছে।

যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তবে আগামী পাঁচ বছরে ভারতে ৪ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগ করতে পারে অ্যাপেল বলে জানা গেছে একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে।

উইনন ও ফক্সকন এই দুই সংস্থার মাধ্যমে ভারতে স্মার্টফোন তৈরি করার পরিকল্পনা রয়েছে অ্যাপেলের বলে জানা গেছে। ফলে এটা যদি বাস্তবায়িত হয় তাহলে ভারতের বৃহত্তম রপ্তানিকারক সংস্থায় পরিণত হবে অ্যাপেল। ইতিমধ্যেই ভারত সরকার চিন থেকে নিজেদের কর্মকাণ্ড গুটিয়ে চলে আসা সংস্থাগুলিকে জায়গা করে দিতে জমি চিহ্নিত করন প্রক্রিয়া শুরু করেছে। আপেলের মতো সংস্থাকে ভারতে আনতেও প্রস্তুতির কোনো খামতি ও নেই।

গত বছরের শেষের দিকে অ্যাপেল, সামসাং, লাভার আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী। ওই বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রোডাকশন লিংক ইন্সেন্টিভ প্রকল্পের কথা তুলে ধরেছেন। তার আওতায় বেশকিছু শর্ত রাখা হয়। বলা হয়েছে এই প্রকল্পের আওতায় যে সংস্থা যত বেশি সামগ্রী উৎপাদন করবে তারা তত বেশি সুবিধা পাবে। সেই সঙ্গে প্রতিটি সংস্থাকে ২০২০ থেকে ২০২৫ এর মধ্যে কমপক্ষে এক কোটি ডলারে সামগ্রী তৈরি করতে হবে বলে জানানো হয়েছিল। কিন্তুবেশ কিছু শর্ত নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে মতান্তর হয়। অনুমান করা হচ্ছে সেইসব মিটে গেলি চিন থেকে অ্যাপেল ভারতের তার উৎপাদন কেন্দ্র সরিয়ে আনতে পারে।

তবে এতে বাধ সাধতে পারে আমেরিকা। কারণ ফক্স নিউজকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প পরিষ্কার বলেছেন, চিন থেকে উৎপাদন কেন্দ্র অ্যাপেল যদি সরাতে চায় তাহলে তা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সরিয়ে আনতে। অন্য জায়গায় গেলে জরিমানার মুখে পড়তে হবে তাদের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here