অর্ণব গোস্বামী একা নন, আরএসএস ও বিশ্ব হিন্দু পরিষদও পালঘরে সন্ন্যাসী হত্যায় ষড়যন্ত্র দেখছে

চিন্ময় ভট্টাচার্য
আমাদের ভারত, ২৫ এপ্রিল: সত্তরোর্ধ্ব সন্ন্যাসী কল্পবৃক্ষ গিরি মহারাজ-সহ তিন জনকে পালঘরে গণপিটুনি এবং হত্যার ঘটনায় ষড়যন্ত্র দেখছেন এক সর্বভারতীয় টিভি চ্যানেলের সঞ্চালক অর্ণব গোস্বামী। প্রকাশ্যে টিভির পর্দায় তিনি সেকথা বলেছেনও। তবে, অর্ণব গোস্বামী একা নন। আরএসএস এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদও মনে করছে, পালঘরের ঘটনার পিছনে বড় ষড়যন্ত্র লুকিয়ে রয়েছে। আর, তার পরও হাত গুটিয়ে রয়েছে উদ্ধব ঠাকরের নেতৃত্বাধীন মহারাষ্ট্র সরকার। এই ব্যাপারে মহারাষ্ট্র সরকারের দাবি, ওই হত্যাকাণ্ডর নিছকই শিশুচুরির অভিযোগকে কেন্দ্র করে ঘটেছে। এটা জনগণের স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া।


ছবি: অরুণ কুমার, সর্বভারতীয় প্রচার প্রমুখ, আরএসএস।

তবে, মহারাষ্ট্র সরকারের সেই দাবিকে গুরুত্ব দিতে নারাজ সংঘ পরিবার। রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের তরফে এই প্রসঙ্গে বিবৃতি জারি করেছেন সংঘের সর্বভারতীয় প্রচার প্রমুখ অরুণ কুমার। তিনি বিবৃতিতে বলেছেন, ‘মহারাষ্ট্রের পালঘর জেলার এক প্রান্তিক গ্রামে জুনা আখড়ার পূজনীয় মহন্ত কল্পবৃক্ষ গিরি ও সন্ন্যাসী সুশীল গিরি-সহ তিন জনকে নির্মম হত্যার ঘটনার তীব্র নিন্দা করছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ। এই ঘটনার পিছনে লুকিয়ে থাকা ষড়যন্ত্র ফাঁস করে, সঠিক দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানাচ্ছে সংঘ।’

রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের মতোই সংঘ পরিবারের অন্যতম সদস্য বিশ্ব হিন্দু পরিষদও পালঘর হত্যাকাণ্ডের পিছনে বড়সড় ষড়যন্ত্র খুঁজে পেয়েছে। গোটা ঘটনায় মহারাষ্ট্র সরকার কার্যত হাত গুটিয়ে রেখেছে বলেই অভিযোগ করেছেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতৃত্ব। উদ্ধব ঠাকরের নেতৃত্বে থাকা মহারাষ্ট্র সরকার এই ঘটনায় কিছুই করবে না, এই অভিযোগ করে রাজভবনে গিয়ে মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারির সঙ্গে দেখা করেছেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নেতারা। তাঁরা রাজ্যপালের কাছে গোটা ঘটনায় উপযুক্ত তদন্ত, ঘটনার পিছনে লুকিয়ে থাকা ষড়যন্ত্র ফাঁস এবং প্রকৃত দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবি করেছেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here