হিংসায় উস্কানির অভিযোগে আটক মুসলিম থেকে হিন্দু হওয়া জিতেন্দ্র নারায়ণ ত্যাগী

আমাদের ভারত, ১৩ জানুয়ারি:হরিদ্বারে ধর্ম সংসদে একটি নির্দিষ্ট ধর্ম সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার ডাক দিয়েছিলেন জ্যোতি নরসিংহানন্দ। এই ঘটনায় স্বামী, ধর্মদাস, সাধ্বী অন্নপূর্ণা এবং সম্প্রতি ধর্মান্তরিত হওয়া ওয়াসিম রিজভি থেকে জিতেন্দ্র নারায়ণ ত্যাগীর এর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়। জ্যোতি নরসিংহানন্দের পর জিতেন্দ্র ত্যাগীকে আটক করেছে উত্তরাখান্ড পুলিশ।

হিংসায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে ধর্মান্তরিত হওয়া জিতেন্দ্র নারায়াণ ত্যাগীর বিরুদ্ধে মামলা হয় উত্তরাখণ্ডে। হরিদ্বারে থানায় তার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে গুলবাহার খান নামে এক ব্যক্তি। অভিযোগের প্রেক্ষিতেই তাকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।প্রসঙ্গত উল্লেখ্য এর আগে জ্যোতি নরসিংহানন্দকেও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ এই একই মামলায়।

উত্তরাখান্ড পুলিশের তরফে টুইট করে বলা হয়েছে নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের মানুষের বিরুদ্ধে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে ওই ঘটনার। সেই অভিযোগেই ওয়াসিম রিজভি ওরফে জিতেন্দ্র ত্যাগীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে হরিদ্বারে থানায়। আইনি প্রক্রিয়া চলছে।

হরিদ্বারের ধর্ম সংসদের ঘটনার প্রেক্ষিতে ইসলামাবাদে ভারতীয় হাইকমিশনের উচ্চপদস্থ প্রতিনিধিকে ডেকে পাঠিয়ে ছিল পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রক। এছাড়াও রায়পুরের ধর্মসভার বক্তৃতায় মহাত্মা গান্ধীকে অবমাননার অভিযোগ ওঠে ধর্মগুরু কালীচরণ মহারাজের বিরুদ্ধে। অভিযোগ ছিল ওই ধর্মসংসদে গান্ধীজীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসের প্রশংসা করেন তিনি। খাজুরাহো থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। কালীচরণের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন রায়পুরের প্রাক্তন মেয়র। তার বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ভঙ্গের অভিযোগ করা হয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here