খাদ্য সামগ্রী পৌঁছাতে গিয়ে বরাবাজারে পুলিশি বাধার মুখে পড়লেন কলকাতা পুলিশের অরূপ মুখার্জি  

সাথী প্রামানিক, পুরুলিয়া, ২৩ এপ্রিল: এক সময় ওদের অপরাধ প্রবণ জনজাতির তকমা দিয়ে অত্যাচার করা হত। নানা রকম মামলা দিয়ে জেলে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হত। বঞ্চিত করা হত সব রকম সরকারি সুযোগ সুবিধা থেকে। সেই যুগের অবসান ঘটলেও তাঁদের দু:খ দুর্দশা ঘোঁচেনি। পুরুলিয়া জেলার বিভিন্ন ব্লকে বিভিন্ন গ্রামের প্রান্তে আলাদা পাড়া করে বসবাস করেন তারা। এখনও বেশ কিছু পরিবার ভাঙ্গা কুঁড়ে ঘরে বসবাস করে থাকেন। অবস্থার পরিবর্তন হয়নি। এই জনজাতির অধিকাংশই দিন মজুর এবং দৈনিক আয়ের উপর নির্ভরশীল। লকডাউনে সবই বন্ধ। কাজ নেই। উপার্জন নেই। সব মিলিয়ে এক ভয়ংকর দিনের অন্যতম প্রত্যক্ষদর্শী হচ্ছেন তাঁরা। এমনই চিত্র দেখা গিয়েছে পুরুলিয়ার বরাবাজার ব্লকের সিন্দ্রী গ্রাম পঞ্চায়েতের ফুলঝোড় গ্রামের শবর পাড়ায়। যেখানে শতাধিক শবর জনজাতির বসবাস। শুধু মাত্র খাবারের জন্য প্রহর গোনেন তাঁরা।
  
 

খবর পেয়ে কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল পদে কর্মরত পুঞ্চার বাসিন্দা খাদ্য সামগ্রী নিয়ে ওই গ্রামে গেলে পুলিশি বাধার মুখে পড়েন তিনি বলে অভিযোগ। ওই এলাকায় যাওয়ার জন্য বরাবাজার থানার পুলিশ কোনও মতেই অনুমতি দেয়নি কলকাতা পুলিশের ওই কনস্টেবল অরূপ মুখার্জিকে। উল্টে তাঁকে নানা ভাষায় অপমাণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে। ওই কলকাতা পুলিশের কনস্টবলের সঙ্গে থাকা খাদ্য সামগ্রী পুলিশ দুঃস্থ ওই শবর পাড়ায় পৌঁছে দেয়নি। পুলিশ নিজের উদ্যোগেও ওই দুঃস্থ পরিবারগুলির পাশে দাঁড়ায়নি বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।


  
খবর পেয়ে অসহায় মানুষগুলির পাশে ছুটে যায় পশ্চিমবঙ্গ শবর খেড়িয়া কল্যাণ সমিতি। বুধবার পরিবারগুলির হাতে খাদ্য সামগ্রী দেয়। ব্লক প্রশাসন বিষয়টি নিয়ে খোঁজ খবর নেওয়ার আশ্বাস দেয়।  

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here