জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে এবার কাজ শুরু করবে পপুলেশন আর্মি, মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায় বিলি হবে গর্ভনিরোধক বড়ি

আমাদের ভারত, ২১ জুলাই: রাজ্যের মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায় মোতায়েন করা হবে পপুলেশন আর্মি। খুব দ্রুত এই আর্মি নিজের কাজ শুরু করতে চলেছে। এই পপুলেশন ইন আর্মি কন্ট্রাসেপটিভ পিলস বা গর্ভনিরোধক ওষুধ বিলি করবে। এছাড়াও জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে সচেতনতা ও তার প্রচার চালাবে। রাজ্য বিধানসভায় এমনটাই জানিয়েছেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা।

রাজ্যের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে রাখতেই মূলত কাজ করবে এই পপুলেশন আর্মি। প্রাথমিকভাবে সচেতনতা বাড়াতে প্রচারের কাজ চালানো হবে মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায়। খুব শীঘ্রই মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায় এই কর্মসূচি শুরু হবে। কারণ অসমে এই ব্যবস্থা না নিলে জনবিস্ফোরণ ঘটতে পারে বলে মনে করছে সরকার। এক্ষেত্রে পশ্চিম ও মধ্য অসমে বিশেষভাবে নজর দেওয়া হচ্ছে।

এই পপুলেশন আর্মিতে যোগ দিয়েছেন প্রায় হাজারেরও বেশি যুবক। এরা সচেতনতার প্রচার করবে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের ওপর ও পরিবার পরিকল্পনার ওপর। এছাড়া বিভিন্ন মুসলিম পরিবারে বিতরণ করা হবে গর্ভনিরোধক বড়ি। রাজ্যের আশা কর্মীদের ওই কাজে লাগানো হবে যাতে কাজ দ্রুত সম্পন্ন হয়।

অসম সরকার সূত্রে খবর, ২০০১ থেকে ২০১১ সালের মধ্যে হিন্দুদের মধ্যে যে জনসংখ্যা বেড়েছে ১০% আর মুসলিমদের মধ্যে জনসংখ্যা বেড়েছে ২৯%।

ফলে রাজ্য সরকারের বক্তব্য, হিন্দুরা কম জনসংখ্যা নিয়ে সুখে রয়েছে সেখানে মুসলিমদের মধ্যে দরিদ্রতা বাড়ছে। তাদের শিক্ষার হার কম জীবনধারণের মান অত্যন্ত অনুন্নত।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, হিন্দুদের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে আছে বলেই তাদের জীবনযাত্রার মান উন্নত তারা শিক্ষিত। কিন্তু মুসলিম বহুল এলাকায় সমস্যা অনেক বেশি। পরিবারের সদস্য বেশি হওয়ার কারণে অনেকেই বাড়ি ছেড়ে অপরাধের রাস্তায় নেমে পড়ছে। তার মতে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ৫.৬ শতাংশ কমে গেলে সমস্যা অনেকটাই সমাধান হয়ে যাবে। এ সমস্যা সমাধানে তিনি বিরোধী দলগুলিরও সহযোগিতা চেয়েছেন। তাঁর বক্তব্য, মুসলিমদের মধ্যে দারিদ্রতা আর্থিক সমস্যার সমাধানের জন্য এই কাজ করা অত্যন্ত জরুরি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here