কলকাতা প্রেস ক্লাবে করোনা চিহ্নিতকরণে সাংবাদিক ও চিত্রসাংবাদিকদের লালারস পরীক্ষার ব্যবস্থা

সৌভিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা, ২৬ এপ্রিল: দেশের বিভিন্ন এলাকায় ঘটনাস্থলে খবর করতে গিয়ে করোনা সংক্রামিত হয়ে যাচ্ছেন সাংবাদিকরাও। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্রে ৫০ জনেরও বেশি সাংবাদিক করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর এসেছে। দেশের অন্যান্য রাজ্যের খবরও খুব একটা আশাব্যঞ্জক নয়। তাই কলকাতাতেও করোনা সংক্রমণের খবর করতে গিয়ে নিজেরাও সংক্রমণের শিকার হতে পারেন, এই আশঙ্কায় দীর্ঘদিন ধরেই টেস্টের দাবি জানাচ্ছিলেন এ রাজ্যের সাংবাদিকরা।

সাংবাদিকদের এই আবেদনে সাড়া দিয়ে সমন্বয়ের ব্যবস্থা করে উদ্যোগী হল কলকাতা প্রেস ক্লাব। এদিন কলকাতা প্লেস ক্লাবের পক্ষ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বিবৃতি পেশ করা হয়। সেখানে জানানো হয়েছে, কলকাতায় যেসব সাংবাদিক ও চিত্রসাংবাদিক অকুস্থলে (করোনা হাসপাতাল এবং বিভিন্ন সংবেদনশীল এলাকায়) গিয়ে খবর ও ছবি সংগ্রহ করছেন, প্রেস ক্লাব কলকাতা তাদের কোভিড-১৯ সংক্রমনের লালারস পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছে। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে কলকাতার স্কুল অফ ট্রপিক্যাল মেডিসিনে প্রত্যেক দিন দুপুর ১২টায় ১৫ জন জনের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হবে। সাংবাদিক ও চিত্র সাংবাদিকদের তাদের নিজ নিজ সংস্থার থেকে স্বাক্ষরিত একটি তালিকা প্রেস ক্লাবে pressclubkolkata@gmail.com এই ইমেইলে পাঠাতে অনুরোধ করা হচ্ছে। তালিকায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির মোবাইল নম্বর ও ইমেইল দিতে হবে। ফ্রিলান্স সাংবাদিকরা নিজেরাই দরখাস্ত করবেন। প্রত্যেককে আধার কার্ড নিয়ে যেতে হবে বা নিজের আধার নম্বর উল্লেখ করতে হবে। রিপোর্ট পেতে দু/তিন দিন লাগবে এবং তা স্বাস্থ্য ভবন মারফত প্রেস ক্লাবে আসবে। যদি সংক্রমণ পাওয়া যায়, তাহলে জানিয়ে দেওয়া হবে। তারপরে সেই টেস্ট রিপোর্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে পারবেন সাংবাদিক ও চিত্রসাংবাদিকরা।

আগ্রহীদের আবেদনের পর প্রত্যেকদিনের জন্য বিভিন্ন সংস্থার ১৫ জনের তালিকা প্রেস ক্লাব থেকে তৈরি করে সকলকে জানিয়ে দেওয়া হবে৷ যাদের নাম প্রেস ক্লাব থেকে ওই দিনের জন্য পাঠানো হবে, শুধু তাদেরই লালারস পরীক্ষার জন্য নেওয়া হবে। মূল ঘটনাস্থলে যাওয়া সাংবাদিকরাই অগ্রাধিকার পাবেন। ধীরে ধীরে আবেদনকারী সকলেই পরীক্ষার সুযোগ পাবেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here