রাজ চক্রবর্তীর ওপর দুষ্কৃতি হামলা টিটাগড়ে, অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন তৃণমূল বিধায়ক

আমাদের ভারত, বারাকপুর, ২৫ জানুয়ারি: বারাকপুরের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তীর ওপর দুষ্কৃতি হামলা। টিটাগড়ের বড়ো মসজিদের কাছে দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী। সেখান থেকে বেরিয়ে আরো একটি অনুষ্ঠানে যাওয়ার সময় তার ওপর হামলা চালায় একদল দুষ্কৃতী।

প্রথমে রাজ চক্রবর্তীর ওপর হামলা চালানো হয় কিন্তু তার নিরাপত্তারক্ষী থাকার কারণে দুষ্কৃতীরা রাজ চক্রবর্তীর ওপর হামলা চালাতে ব্যর্থ হয়ে তারা তার নিরাপত্তারক্ষীর ওপর হামলা চালায়। তৎক্ষণাৎ তৃণমূল কর্মীরা জড়ো হয়ে গেলে অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচেন বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী। এরপরই এ ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার মানস কুমার ভার্মা, ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারের জয়েন্ট সিপি অজয় ঠাকুর, খড়দা থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক। এর পরেই সেখানে উপস্থিত হয় বিধায়ক সুবোধ অধিকারী, নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিক, কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্র।

এদিন নিজের ওপর ঘটা হামলা প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের একপ্রকার চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে রাজ চক্রবর্তী বলেন, “আমাকে মারতে এসেছিল কিছু দুষ্কৃতী। অল্পের জন্য আমি প্রাণে বেঁচে গেছি। এই ব্যারাকপুর, টিটাগড়ে দুষ্কৃতীদের দুর্বৃত্তায়ন আমি বন্ধ করবোই। সম্পূর্ণ ঘটনা মুখ্য মন্ত্রীকে ফোন করে জানিয়ে দিয়েছি। আমি আগামী ৫ বছর এখানকার বিধায়ক থাকবো, আর আমি এই দুষ্কৃতী তাণ্ডব বন্ধ করেই ছাড়বো।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here