নেতাজীকে ও তার অবদানকে ভুলিয়ে দেওয়ার চেষ্টা হয়েছিল, নাম না করে কংগ্রেসকে বিঁধেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

আমাদের ভারত, ২৩ জানুয়ারি: নেতাজীর নাম ও তার অবদান ভুলিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। আন্দামানে ২১টি দ্বীপের নামকরণ অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে এভাবেই নাম না করে কংগ্রেসকে আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

নেতাজী সুভাষ চন্দ্রের ১২৭ তম জন্মবার্ষিকীতে দেশ জুড়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। নেতাজীর প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজ পরাক্রম দিবসে পরমবীর চক্র প্রাপকদের নামে আন্দামান ও নিকোবার দ্বীপপুঞ্জের ২১ টি অনামি দ্বীপের নামকরণ করেন মোদী। এ নামকরণ অনুষ্ঠান থেকেই নাম না করে কংগ্রেস সরকারকে তোপ দাগের মোদী।

বক্তব্য রাখার সময় মোদী অভিযোগে সুরে বলেন, স্বাধীনতার পর নেতাজীর নাম ভুলিয়ে দেওয়ার অনেক চেষ্টা হয়েছে। তিনি বলেন, দেশে গত ৮-৯ বছরে নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর সঙ্গে জড়িত এমন হাজার রকমের কাজ হয়েছে যা স্বাধীনতার পর পরই হয়ে যাওয়া উচিত ছিল, কিন্তু সেই সময় হয়নি।

তিনি বলেন, “আজ একবিংশ শতাব্দী দেখছে স্বাধীনতার পর যে নেতাজী সুভাষকে ভুলিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল দেশ সেই নেতাজীকে প্রতিমুহূর্তে স্মরণ করছে।” মোদীর এই বক্তব্য আসলে কংগ্রেস সরকারকে বিঁধেছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

একদিকে নেতাজীকে ভুলিয়ে দেওয়ার জন্য কংগ্রেসকে দায়ী করেছেন প্রধানমন্ত্রী। ঠিক একইভাবে মনে করিয়ে দিয়েছেন নেতাজীকে বেশবাসীর মনে বাঁচিয়ে রাখার জন্য তার নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার কি কি করেছেন। মোদী বলেছেন, গত ৮-৯ বছরে সুভাষচন্দ্র বসুকে নিয়ে অনেক কাজ হয়েছে দেশে। ২০১৮ সালে আন্দামান-নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। সেই সময় রস আইল্যান্ডের নাম নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসু দ্বীপ নামে নামকরণ করেন তিনি। সেই সময় ঔপনিবেশিকতার ছায়া মুছে দিয়ে হ্যাভলক ও নীল আইল্যান্ডের নামকরণ করেছিলেন স্বরাজ ও শহিদ দ্বীপ নামে। আজ সে কথাই মনে করিয়ে দেন মোদী। তিনি বলেন, “আজ রস আইল্যান্ড নেতাজী সুভাষ দ্বীপ নামে পরিচিত। হ্যাভলক ও নীল আইল্যান্ড স্বরাজ শহিদ দ্বীপের নামকরণ হয়েছে। এর মধ্যে সবথেকে বড় উল্লেখযোগ্য স্বরাজ ও শহিদ নাম খোদ নেতাজীর দেওয়া। স্বাধীনতার পরে এই নামকে গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। আজাদ হিন্দ ফৌজের যখন ৭৫ বছর পূরণ হয়েছে তখন আমাদের সরকারি নামগুলির প্রতিষ্ঠা করেন।

মোদী বলেন, আমাদের দ্বীপের নামে উপনিবেশিকতা ও দাসত্বের ছাপ ছিল। আমার সৌভাগ্য যে চার থেকে পাঁচ বছর আগে আমি যখন পোর্টব্লেয়ারে গিয়েছিলাম তখন তিনটি প্রধান দ্বীপের নাম ভারতীয়দের নামে নামকরণের সুযোগ পেয়েছিলাম। “আজ ২১টি অনামি দ্বীপের নামকরণের পাশাপাশি নেতাজীকে উৎসর্গ করে জাতীয় স্মৃতিসৌধের মডেলের উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here