সাইবার অপরাধ প্রতিরোধে বধিরতাযুক্ত ব্যক্তিদের জন্য সচেতনতামূলক আলোচনাসভা ‘অন্বেষণ’-এর

আমাদের ভারত, ২০ সেপ্টেম্বর: সাইবার অপরাধ কীভাবে প্রতিরোধ করা সম্ভব, সেটা নিয়ে বধিরতাযুক্ত ব্যক্তিদের জন্য ‘অন্বেষা’ নামে একটি সামাজিক সংস্থা মঙ্গলবার এক সচেতনতামূলক আলোচনাসভার আয়োজন করে।

কোভিড মহামারী পরিস্থিতির কারণে, গত দুই বছর ধরে এই বার্ষিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা সম্ভবপর হয়নি। এই বছর, অন্বেষা কলকাতার তরফে বিভিন্ন ধরনের সচেতনতামূলক অনুষ্ঠান আয়োজন করার পরিকল্পনা নেয়। মঙ্গলবার তার সূচনা হল। ‘অন্বেষা’ কলকাতার বাঘা যতীনের চিত্তরঞ্জন কলোনীস্থিত শিখা গুহ স্মৃতি ভবনে বধির যুবা ও তাদের পরিবারদের জন্য সাইবার অপরাধ প্রতিরোধ বিষয়ক এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

উদ্যোক্তা সংগঠনের তরফে অর্ণব ভট্টাচার্য জানান, “সাইবার ক্রাইম বতমানে গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা হয়ে উঠেছে। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ এবং ইন্টারনেট ব্যবহারের গুরুত্ব রয়েছে – সে বিষয়ে অস্বীকার করা যায় না। কিন্তু বিশ্বের বহু সংখ্যক মানুষ নানা ভাবে অভিনব উপায়ে সাইবার জালিয়াতির শিকার হয়ে পড়েছেন।

সাইবার অপরাধীদের নিত্য নতুন কৌশলে অনেকেই শারীরিক, মানসিক এবং আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন – ব্যতিক্রম নয় শুনতে না পাওয়া মানুষেরাও। ভাষার সমস্যা, ইশারা ভাষায় দক্ষ ব্যক্তির অভাব থাকতে তারা সহজে পুলিশের কাছে যেতে পারে না প্রতিকারের জন্য।

সাইবার অপরাধ কি? কেন আমরা এই অপরাধের শিকার হয়ে পড়ি? কি কি জানলে আমরা এই সব অপরাধীর হাত থেকে নিজেকে এবং পরিবারের সবাইকে বাঁচাতে পারবো? এদিনের আলোচনাসভায় প্রায় ৪২ জন অংশগ্রহণ করেন।

কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগের রঞ্জন চক্রবর্তী এই বিষয়ে সহজভাবে আলোকপাত করার চেষ্টা করেন। অংশগ্রহণকারীদের বোঝার সুবিধার্থে ইশারা ভাষায় সহযোগিতা করেন রেশমী কোনার। কথাকে লেখাতে রূপান্তরিত করার দায়িত্বে ছিলেন বিশেষ শিক্ষিকা সুতপা সামন্ত। প্রশ্ন উত্তর পর্বে বিষয়টিকে আরও স্পষ্ট হয়ে ওঠে সবার কাছে।”

বধির মানুষ, তাদের সমস্যা এবং সংস্কৃতি সম্পর্কে জনসচেতনতা বাড়ানোর উদ্দেশ্যে আন্তর্জাতিক বধিরতা সপ্তাহ পালন করা হয়। সাধারণত প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে এটি পালন করা হয়। এবার ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়েছে এবং আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর শেষ হবে। শ্রবণে অসুবিধাযুক্ত মানুষদের অধিকারগুলি, যেমন স্বাস্থ্য, শিক্ষা, রোজগার, বাসস্থান, সুরক্ষা, সামাজিক সম্মান ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যে বধিরদের আন্তর্জাতিক সপ্তাহ পালন করা হয়। এ বছরের থিম হল “সকলের জন্য অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ গড়ে তোলা!”

সারা বিশ্ব জুড়ে বধিরতার সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন সমাজসেবী সংস্থা, শুভাকাঙ্ক্ষী ব্যক্তিরা সচেতনতামূলক নানা অনুষ্ঠান আয়োজন করে থাকে। ২০০৬ সাল থেকে অন্বেষা কলকাতা বধির শিশু ও ব্যক্তিদের কল্যাণের কাজে নিয়োজিত। বধিরতা, তাদের চ্যালেঞ্জ এবং সম্ভাবনা সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তোলার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক বধিরতা সপ্তাহ পালন চলাকালীন অণ্বেষা কলকাতা প্রতি বছর ‘অণ্বেষণ’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here