অযোধ্যা মামলার রায় পুনর্বিবেচনা চায় না সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড, একই মত শাবানা নাসিরউদ্দিনদের

আমাদের ভারত,২৬ নভেম্বর:একদিকে যেমন সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড অযোধ্যা মামলার রায়ের পুর্ন বিবেচনার আবেদন করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। তেমনই শাবানা আজমি, নাসিরউদ্দিন শাহ সহ ১০০ জন্য বিশিষ্ট নাগরিকরা বলেছেন অযোধ্যা মামলার বিবাদকে জিইয়ে রাখলে তা মুসলিম সমাজের ক্ষতি করবে। এই রায় ত্রুটি পূর্ণ হলেও তাকে জিইয়ে রাখা উচিত নয় বলে মনে করছেন তারা।

শাবানা আজমি, নাসিরুদ্দিন শাহের মতো বিশিষ্ট নাগরিকদের একাংশ অযোধ্যা মামলা সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পুনর্বিবেচনার আর্জি জানানোর যে সিদ্ধান্ত মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড নিয়েছে তার সঙ্গে একমত নন। বিবৃতি দিয়ে মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করলেন তারা।

শাবানা আজমি, নাসিরুদ্দিন শাহ, সাংবাদিক জাবেদ, ইসলামী গবেষক,কবি থিয়েটার সংগীতশিল্পী ও ব্যবসায়ীর মিলিয়ে প্রায় ১০০ জনের তরফে সোমবার একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে আইনের চেয়ে বিশ্বাসকে প্রাধান্য দিয়েছে আদালত। এক্ষেত্রে আমরা মুসলিম সম্প্রদায়, সংবিধান বিশেষজ্ঞ এবং ধর্মনিরপেক্ষ সংগঠনগুলির মনে যে ক্ষোভ রয়েছে তা আমরা অনুভব করতে পারছি। আমরা মানছি আদালতের রায় ত্রুটিপূর্ণ। কিন্তু আমাদের বিশ্বাস এই বিবাদ জিইয়ে রাখলে তাতে কোন লাভ নেই। বরং এতে ভারতীয় মুসলিমদের ক্ষতি হবে।’

ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘মন্দির মসজিদ নিয়ে ব্যস্ত থাকলে তাতে সংঘ পরিবারের সুবিধা হবে।’ সবকিছুকে পিছনে ফেলে মুসলিমদের এগিয়ে যেতে বলেছেন কেউ কেউ। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘আমাদের আর্জি মন্দির মসজিদ ছেড়ে বেরিয়ে আসুন আপনারা, না হলে সংঘ পরিবারের ধর্মনিরপেক্ষ গণতন্ত্রকে হটিয়ে হিন্দু রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্য চাপা পড়ে যাবে। আমাদের বিশ্বাসে বিবাদ টেনে নিয়ে গেলে মুসলিম বিদ্বেষ বাড়বে। ইসলাম ভীতি তৈরি হবে। যা সাম্প্রদায়িক বিভাজনের সৃষ্টি করবে।’

১০০ বছর ধরে চলে আসা রাম জন্মভূমি বাবরি মসজিদ মামলায় ৯ নভেম্বর চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করেছিল সুপ্রিম কোর্ট। রায়ে বিতর্কিত জমি রামলালার হাতে তুলে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। অন্যদিকে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে মসজিদের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে অন্যত্র পাঁচ একর জমির দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

প্রথম থেকেই আদালতের এই রায় নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত মুসলিম সমাজ। সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছে তারা। এই রায়ের পুনর্বিবেচনার বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার বোর্ডের তরফে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান বোর্ড সদস্য আব্দুর রাজ্জাক। তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানান বোর্ডের ৭ জন সদস্যের মধ্যে ৬ জনই রায় পুনর্বিবেচনার বিরুদ্ধে। অধিকাংশই মনে করছে অযোধ্যা মামলার রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করা সঠিক হবে না। তবে মসজিদ নির্মাণের জন্য অযোধ্যাতে ৫ একর জমি দেওয়ার যে নির্দেশ দিয়েছেন শীর্ষ আদালত, সছই রায়কে চ্যালেঞ্জ করা হবে কিনা তা নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। এই বিষয়টি নিয়ে আরও একবার বৈঠকে হবে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের।

কিন্তু মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড জানিয়ে দেয় সুপ্রিম কোর্ট যে ৫ একর জমি দিয়েছে তা গ্রহণযোগ্য নয়। শরিয়ত অনুযায়ী অন্যের জমিতে মসজিদ নির্মাণ করা যায় না।আর এই রায় বিশ্বাসের উপর দাঁড়িয়ে দিয়েছে আদালত। যা সঠিক নয়। তাই তারা রায়ের পুনর্বিবেচনা করে আদালতে আর্জি জানানোর সিদ্ধান্ত নেয়। এবার সেই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করলেন শাবানা আজমি নাসিরুদ্দিন শাহরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here