আমন্ত্রণ বিতর্ক নিয়েই বালুরঘাটে উদ্বোধন কৃষি মহাবিদ্যালয়ের ভবনের, বেপাত্তা জেলার মন্ত্রী থেকে বিধায়ক

আমন্ত্রণ বিতর্ক নিয়েই বালুরঘাটে উদ্বোধন কৃষি মহাবিদ্যালয়ের ভবনের, বেপাত্তা জেলার মন্ত্রী থেকে বিধায়ক

আমাদের ভারত, বালুরঘাট, ২১ আগস্ট: জেলার একমাত্র মন্ত্রী, বিধায়ক ও সরকারি প্রতিনিধিদের গরহাজিরার মধ্য দিয়েই বালুরঘাটে চালু হল কৃষি মহাবিদ্যালয়ের নতুন ভবন। আমন্ত্রণ কর নিয়ে বিতর্কে জড়ালেন কর্তৃপক্ষ। বুধবার পতিরামের মাঝিয়ানে চালু হওয়া কৃষি মহাবিদ্যালয়ের নতুন ভবন উদ্বোধন ঘিরেই সামনে এল এমন বিতর্ক।

আজ বিকেলে ফলক উন্মোচন এবং প্রদীপ প্রজ্বলনের মাধ্যমে রাজ্যের কৃষি মন্ত্রী আশিস ব্যানার্জি ও উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করলেও মঞ্চে দেখা যায়নি জেলার একমাত্র মন্ত্রী এবং বিধায়কদের। আর যাকে ঘিরেই জেলায় তৈরি হয়েছে তুমুল শোরগোল পরিস্থিতি। সরকারি অনুষ্ঠানে সেভাবে আমন্ত্রণ না পাওয়ার বিষয় নিয়ে ক্ষোভ উগড়েছেন তপনের বিধায়ক তথা উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী বাচ্চু হাঁসদাও। অনুষ্ঠান নিয়ে সেভাবে তাঁকে কিছু জানানো হয়নি বলেই জানিয়েছেন মন্ত্রী। যদিও প্রতিমন্ত্রীর এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, সকলকেই আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ অবশ্য কিছুটা প্রসঙ্গ এড়িয়ে জানিয়েছেন, আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। ব্যস্ততার কারনে তারা আসতে পারেননি।

উত্তরবঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা হিসাবে গত পাঁচ বছর আগে বালুরঘাটের মাঝিয়ানে কৃষি মহাবিদ্যালয় তৈরির কাজ শুরু হয়। পঠন পাঠন শুরু হলেও ভবন নির্মাণ সম্পূর্ণ না হওয়ায় সমস্যায় পড়ছিলেন ছাত্র ছাত্রীরা। এদিনই যার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়েছে। আর সেই উদ্বোধনের আমন্ত্রণ ঘিরেই তৈরি হয়েছে তুমুল বিতর্ক। এই অনুষ্ঠানে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, মুখ্যমন্ত্রীর কৃষি বিষয়ক উপদেষ্টা প্রদীপ মজুমদার, কৃষি মহা বিদ্যালয়ের উপাচার্য্য চিরন্তন চট্টোপাধ্যায়, জেলা শাসক নিখিল নির্মল উপস্থিত থাকলেও দেখা যায়নি জেলার একমাত্র মন্ত্রী বাচ্চু হাঁসদা ও অনান্য বিধায়ক কাউকেই। যাকে ঘিরেই আমন্ত্রণ বিতর্কে পড়েছেন কর্তৃপক্ষ।

দপ্তর সূত্রের খবর, ইতিমধ্যে প্রায় ৩৫ কোটি টাকা খরচে তৈরি করা হয়েছে কৃষি মহাবিদ্যালয়ের ভবন। রাস্তা থেকে বাউন্ডারি ওয়াল এসবের জন্য উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর থেকে আরও ৬ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দপ্তরের মন্ত্রী। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা কৃষি মন্ত্রীর কাছে ভবনের আসবাবপত্র সহ আনুসাঙ্গিক জিনিসপত্রের জন্য আরও সাড়ে পাঁচ কোটি টাকার আবেদন জানিয়েছেন কৃষি মহাবিদ্যালয়ের উপাচার্য্য। অনুষ্ঠানের শুরুতেই মাঝিয়ান কৃষি মহাবিদ্যালয়ের সাফল্য তুলে ধরেন উপাচার্য্য চিরন্তন চট্টোপাধ্যায় । তিনি জানিয়েছেন, প্রথম ব্যাচেই এই মহাবিদ্যালয় থেকে সর্বভারতীয় স্তরে ৩ জন ছাত্র র‍্যাঙ্ক করেছে । এবছরও ভাল ফল করেছে ছাত্রছাত্রীরা । মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ তার বক্তব্যে তুলে ধরেন আগামীতে দেশের কৃষি বিজ্ঞানীদের কৃষি গবেষণার জন্য এই মহাবিদ্যালয়েই ছুটে আসতে হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

7 + five =