লকডাউনে কর্নাটকে আটকে পড়া ১৪ হাজার বাঙালিকে দরাজ হাতে সাহায্য করছে বঙ্গীয় সমাজ

প্রদীপ কুমার দাস, আমাদের ভারত, ১০ এপ্রিল: লকডাউন এর ফলে কর্নাটকে আটকে পড়া প্রায় ১৪ হাজার বাঙালিকে সাহায্যের জন্য দরাজ হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বঙ্গীয় সমাজ। তাদের থাকা, খাওয়া থেকে শুরু করে নানান সহযোগিতা করে চলেছে এই বঙ্গীয় সমাজ।

পশ্চিমবঙ্গ থেকে বহু মানুষই ব্যাঙ্গালোরে যান চিকিৎসা করাতে। লকডাউন ফলে তাদের একটা বড় অংশ আটকে পড়েছেন। এছাড়া বহু মানুষ কর্ণাটকের বিভিন্ন এলাকায় শ্রমিকের কাজেও গিয়েছেন। তারাও ফিরতে পারেননি। সেই সব অসহায় মানুষদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বঙ্গীয় সমাজ। এইসব মানুষদের সাহায্য করার জন্য একটি হেল্পলাইন চালু করেছে তাঁরা। এই হেল্পলাইনের মাধ্যমে আটকে পড়া মানুষজন তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। শুধু ব্যাঙ্গালোরের মানুষের আটকে পড়া মানুষরাই নন তাদের কাছে সাহায্য চেয়ে ফোন করেছেন পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন দলের সাংসদ এবং জেলার নেতারা। এদের মধ্যে রয়েছেন সাংসদ সুকান্ত মজুমদার, সৌমিত্র খাঁ, নিশীথ প্রামানিক, অধীর চৌধুরী, শান্তনু ঠাকুর। তাঁরা ফোন করেছেন ব্যাঙ্গালোরে আটকে পড়া তাদের এলাকার মানুষদের সাহায্য করার জন্য। ত্রিপুরা থেকেও সাংসদ এবং বিভিন্ন নেতা সাহায্য চেয়ে ফোন করেছেন।

বঙ্গীয় সমাজের সভাপতি সৌরভ মুখার্জি জানান, আগরতলার সাংসদ প্রতিমা ভৌমিকও তাঁদের ফোন করে সেখানে সেখানে আটকে পড়া ত্রিপুরার মানুষের জন্য সাহায্য চেয়েছেন। ইতিমধ্যে প্রায় ১৩ হাজার মানুষেকে তারা সাহায্য করেছেন। তাদের প্রতিদিনের খাবারের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এছাড়া চিকিৎসার জন্য যাওয়া ৭ হাজার মানুষ তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। এরা সকলেই আর্থিক সঙ্কটের মধ্যে পড়েছেন। তাঁদের মধ্যে প্রায় ৪ হাজার জনকে বিনে পয়সায় লজে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এছাড়া প্রায় তিন হাজারকে কম খরচে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন।

সৌরভবাবু জানান, তাদের প্রায় ৯ লক্ষ সদস্য রয়েছে ব্যাঙ্গালোরে। সেই সদস্যদের সাহায্য নিয়েই কাজ করা হচ্ছে। এছাড়া কর্নাটক সরকারও তাদের যথেষ্ট সাহায্য করছে। যেখানে তাদের কর্মীরা পৌঁছতে পারছেন না সেখানে কর্ণাটক সরকার তাদের প্রশাসনের মাধ্যমে আটকে পড়া বাঙালিদের কাছে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন। এমনকি অনেক ক্ষেত্রে পুলিশও খাবার পৌঁছে দিচ্ছে। এছাড়া ব্যাঙ্গালোর পুরসভাও একইভাবে তাদের সাহায্য করছে। শুধু ব্যাঙ্গালোর নয় মহীশূর, টুংপুর এবং ম্যাঙ্গালোরের বিভিন্ন জায়গায় তাদের সদস্যরা সেখানে আটকে পড়া পশ্চিমবঙ্গ এবং ত্রিপুরার বাঙ্গালীদের সাহায্য করে চলেছেন।

ছবি: সৌরভ মুখার্জি, সভাপতি, বঙ্গীয় সমাজ।

শুধু কর্নাটকেই নয়, এই বঙ্গীয় সমাজ তাদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে পশ্চিমবঙ্গেও। বঙ্গীয় সমাজের সভাপতি সৌরভ মুখার্জী জানান, গত চারদিন ধরে তাঁরা ব্যারাকপুর এবং সংলগ্ন এলাকায় অসহায় মানুষদের সাহায্য শুরু করেছেন। ব্যারাকপুরের সংসদ অর্জুন সিং এর সহযোগিতায় ইতিমধ্যেই পলতা, ব্যারাকপুর এবং ইচ্ছাপুরে প্রায় ৪০০ পরিবারের কাছে চাল, ডাল, তেল, নুন এবং বিভিন্ন রকমের মসলা পৌঁছে দিয়েছেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here