বাঘমামার ভয়ে সিঁটিয়ে বাঁকুড়ার জঙ্গলমহল, তদন্তে এলেন বনপাল

আমাদের ভারত,বাঁকুড়া, ৯ জানুয়ারি: বছরখানেক যেতে না যেতেই নতুন বছরের শুরুতেই ফের বাঘ আতঙ্ক বাঁকুড়ার জঙ্গলমহলে। এবার বারিকুল থানার খেজুরখেন্না ও রামপুরের চাকা গ্রামে আলু ও সরষের ক্ষেতে দেখা মিললো অজানা জন্তুর পায়ের ছাপ। ঐ পায়ের ছাপ বাঘের বলেই অনুমান গ্রামবাসীদের। শুধু তাই নয় গ্রামের দুই যুবক স্বচক্ষে বাঘ দেখেছেন বলে জানিয়েছেন। এই ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ক্রমশঃ বাড়ছে।

জঙ্গল লাগোয়া এই এলাকা একসময় মাওবাদীদের ভয়ে সিঁটিয়ে থাকত। সেই ভয় কেটেছে। তবে নতুন করে এলাকায় বাঘমামার পায়ের ছাপ আশঙ্কা বাড়িয়েছে। গত শনিবার প্রথম এই পায়ের ছাপ দেখতে পান গ্রামবাসীরা। খবর ছড়িয়ে পড়তেই তড়িঘড়ি ঐ দিনই গ্রামে যান বনদপ্তরের কর্মী ও আধিকারিকরা।

এলাকার বাসিন্দা গোবিন্দ পাল, রবীন্দ্রনাথ পালরা লালগড়ের বাঘের স্মৃতি উস্কে দিয়ে জানান, জঙ্গল ঘেরা গ্রামে বাস করি। ভীষণ আতঙ্কে আছি। সন্ধ্যার পর কেউ বাড়ির বাইরে বেরোতে সাহস পাচ্ছেন না। তারা আরও জানান, নতুন করে ঐ এলাকায় ফের বাঘের পায়ের ছাপ দেখতে পাওয়া গেছে। যদিও এখনো পর্যন্ত গ্রামের কোনও গৃহপালিত পশু বা মানুষের ক্ষতি ঐ বাঘ করেনি বলেই তারা জানিয়েছেন। জঙ্গলের এক বাসিন্দা মটুক কর্মকার বলেন, গ্রামের দুটি ছেলে মোটরবাইকে জঙ্গল পথে আসার সময় রাস্তার পাশে বাঘটিকে দেখতে পেলে ভয়ে তারা ফিরে চলে যায়। এই ঘটনার পর তারা সকলেই আরও বেশি আতঙ্কে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

চিফ কনজারভেটর অফ ফরেষ্ট রাজীব কুমার (সেন্ট্রাল) ঘটনাস্থলে গিয়ে জন্তুর পায়ের ছাপ বাঘের- ই বলে নিশ্চিত করেছেন। বাঘের গতিবিধি জানার জন্য বনদপ্তরের কর্মীদের গ্রামে নজরদারি রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে গ্রামবাসীদেরও সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বনপাল।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here