বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের মানবিক প্রয়াস

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ৩ মে: করোনা সংকটকালে গবেষক-গবেষিকাদের আর্থিক অনুদান নিয়ে কর্মহীন, বিপন্ন এবং আর্থিক দিক দিয়ে পিছিয়ে পড়া মানুষদের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এল বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ। রবিবার সকালে বাংলা বিভাগের প্রাক্তনী, গবেষক-গবেষিকাদের পক্ষ থেকে মেদিনীপুর সদর ব্লকের গুড়গুড়িপাল থানার অন্তর্গত ধেড়ুয়া ১ নম্বর অঞ্চলের মালবান্দি মৌজার আদিবাসী- কুড়মি অধ্যুষিত প্রান্তিক গ্রাম কুকুরমুড়ি এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। ত্রাণ সামগ্রী হিসাবে গ্রামের প্রান্তিক ১৪০টি পরিবারের হাতে আলু, পেঁয়াজ, মুসুর ডাল, সরিষার তেলের প্যাকেট, হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কাগুঁড়ো, সাবান, সোয়াবিন, মুড়ি ইত্যাদি নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য তুলে দেওয়া হয়।

স্থানীয় কুকুরমুড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজিত এই ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচিতে বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের গবেষক-গবেষিকাদের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ড: অভিষেক রায়, ড: রমেশ সরেন, ড: নরেন হালদার, শোভন ঘোষ, অভি কোলে, অরূপ সিং প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কুকুরমুড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক তথা বাংলা বিভাগের শুভাকাঙ্ক্ষী উদয় বেরা। গুড়গুড়িপাল থানার পক্ষে পুলিশকর্মী সনাতন মাহাতোর তত্ত্বাবধানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই এই কর্মসূচি সম্পন্ন হয়। কর্মসূচি সুষ্ঠুভাবে রূপায়ণে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, গুড়গুড়িপাল থানা, মেদিনীপুর সদর ব্লক প্রশাসন ও পঞ্চায়েত সমিতিকে বাংলা বিভাগের গবেষকবৃন্দের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়।

গবেষকদের পক্ষে শোভন ঘোষ, অভি কোলেদের মতে, বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের গবেষকরা স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে উদ্যোগী হয়ে এই সংকটময় পরিস্থিতিতে কর্মহীন, দরিদ্র, অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছে। আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস কিছুটা হলেও মানুষের কাজে লাগলে আমরা খুশি হবো। সবার সহযোগিতা নিয়ে আমরা আগামী দিনে আরও বেশি সংখ্যক মানুষের পাশে ত্রাণ পৌঁছে দেবার চেষ্টা করব।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here