বিনা অনুমতিতে ভারতমাতার পুজো হল রামপুরহাটে

বিনা অনুমতিতে ভারতমাতার পুজো হল রামপুরহাটে

আমাদের ভারত, রামপুরহাট, ১৪ আগস্ট: পুলিশের অনুমতি ছাড়াই ভারতমাতার পুজো করা হল রামপুরহাটে। পুজোর আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন বিজেপির বীরভূম জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডল। যদিও পুজোয় পুলিশকে বাধা দিতে দেখা যায়নি।

কয়েক বছর ধরেই রামপুরহাট পুরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মহাজনপট্টি সংলগ্ন দশেরপল্লি দুর্গাপুজো কমিটির জায়গায় ভারতমাতার পুজো হয়ে আসছে। রামপুরহাট ভারতমাতা পুজো কমিটি নাম দিয়ে এই পুজো হয়ে আসছে। গতবছর পুজোর সূচনা করেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। গতবছর বেশ কিছুটা পথ শোভাযাত্রায় পা মেলান দিলীপবাবু। তবে এবার পুলিশ পুজোরই অনুমতি দেয়নি। ফলে শোভাযাত্রা করা হয়নি। বেলার দিকে পুজো মণ্ডপে আসেন শ্যামাপদ মণ্ডল। সেখানে উপস্থিত ছিলেন দলের জেলা সহ সভানেত্রী রূপা মণ্ডল, সম্পাদক অতনু চট্টোপাধ্যায়, সংখ্যালঘু মোর্চার জেলা সভাপতি জামাল উদ্দিন খান।

পুজোর সূচনা করার পর সাংবাদিকদের সামনে অনুমতি না দেওয়ায় পুলিশের ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করেন বিজেপির জেলা সভাপতি। তিনি বলেন, “দিদির পুলিশ ভাইরা এখানে পুজোর অনুমতি দিচ্ছে না। আর কলকাতায় আয়কর দফতরের সামনে দিদির জননী বাহিনী পুজো নিয়ে অবস্থান বিক্ষোভ করছেন। এই ভণ্ডামি মানুষ ধরে ফেলেছে। তাই লোকসভায় শোচনীয় পরাজয়। বিধানসভায় দিদির দলকে তো খুঁজে পাওয়া যাবে না”।

শ্যামাপদবাবু আরও বলেন, “বিনা অনুমতিতে পুজো করার ইচ্ছে আমাদের নেই। কিন্তু ভারতবর্ষে ভারতমাতার পুজো হবে না তো কি জঙ্গির বাবাদের পুজো হবে? পুজোর জন্য অনুমতি চেয়েছিলাম। এর আগেও পুজো হয়েছে। এখনও হবে। সারা রাজ্যে এই পুজো হচ্ছে। রামপুরহাটেও হয়ে আসছে। পুলিশ যদি তৃণমূলের কথায় রাজনীতি করার চেষ্টা করে তাহলে কি করব। পুজো পুজোর মতো হবে। আর পুলিশ পুলিশের মতো চলবে। এরজন্য ভারতমাতার পুজো আটকাবে না। এই পুজো বিজেপির পুজো নয়। সারাভারতবাসীর পুজো। সব সম্প্রদায়ের মানুষই ভারতমাতার পুজো করবে। কারণ ভারতমাতাকে আমরা মা হিসাবে মেনে নিয়েছি। সেই মায়ের পুজোতে কারও তো বাধা থাকার কথা নয়। কেউ যদি ভারতবর্ষে থেকে ভারতের বিরোধীতা করে তা মেনে নেওয়া যাবে না। আমাদের পুজো শান্তিপূর্ণভাবেই হবে।

আমরা ভারতমাতার কাছে দেশের শান্তি কামনা করছি। সেই সঙ্গে সন্ত্রাসবাদী নির্মূল করার প্রার্থনা করছি। আমরা চাই হানাহানি, বোমাবাজি বন্ধ হোক। দেশের মানুষ শান্তিতে বসবাস করুক”।

জেলা পুলিশ সুপার শ্যাম সিং বলেন, “পুজো বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই”।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen + nineteen =