বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফি বন্ধ করার আবেদন ভারতীর 

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৪ এপ্রিল: বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির ফি মুকুব করতে মুখ্যমন্ত্রীকে আবেদন জানালেন ভারতী ঘোষ। শুক্রবার এক ভিডিও বার্তায় তিনি জানান, লকডাউনের জন্য সমস্ত স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায় ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষাকর্মী এবং অভিভাবকরা উদ্বেগের মধ্যে রয়েছেন। সারা ভারতবর্ষে বত্রিশ কোটি পড়ুয়া গৃহবন্দি রয়েছে। তাদের সকলের চিন্তা কবে স্কুল কলেজ খুলবে। বিভিন্ন রকমের শিক্ষা ও চাকরি ক্ষেত্রের পরীক্ষা যাদের রয়েছে তারা চিন্তিত তাদের প্রগতির পথ নিয়ে। ভারতী ঘোষের অনুরোধ, এই অবস্থায় রাজনৈতিক তরজা ছেড়ে পাতার পর পাতা চিঠি না লিখে মুখ্যমন্ত্রী উচিত রাজ্যের দুর্দশাগ্রস্ত মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে রাজধর্ম পালন করা।

ভারতী ঘোষ বলেন, এই কঠিন সময়ে মানুষের রুজি রোজগার বন্ধ। দিনমজুরের কাজ নেই। যারা কোম্পানিতে কাজ করে তাদের কারখানা বন্ধ থাকায় রুজি রোজগার বন্ধ। এই সমস্ত মানুষদের ছেলেমেয়েরা স্কুলে যেতে পারছে না। সরকারের এগিয়ে এসে এইসব বিষয় গুলি দেখা উচিত। বেসরকারি স্কুলগুলি যাতে ফি না নেয় এই মর্মে  বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে সরকারের নোটিশ দেওয়া প্রয়োজন, কারণ গ্রামাঞ্চলের অভিভাবকরা প্রচন্ড আর্থিক সমস্যার মধ্যে পড়েছেন। তারা ঠিকমতো ত্রাণ পাচ্ছেন না। এই সময় তাদের পাশে দাঁড়িয়ে সরকারের সহযোগিতা করা দরকার। তাদের ছেলেমেয়েদের জন্য অনলাইনে পড়াশোনা করার ব্যবস্থা করাও খুব জরুরি। তাদের নেট ফ্রি করা এবং বিদ্যুত বিলে ছাড় দেওয়া দরকার। যাদের অ্যান্ড্রয়েড ফোন নেই তাদের জন্য লকডাউনের পর সমস্ত স্কুলে বিশেষ ক্লাসের ব্যবস্থা করতে মুখ্যমন্ত্রীকে আবেদন জানিয়েছেন ভারতী ঘোষ। তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে ওই ভিডিও বার্তায় বলেছেন, ত্রাণের অভাবে গ্রামের বাচ্চাদের স্বাস্থ্য খারাপ হচ্ছে। এরজন্য তারা যাতে ঠিকমত মিড-ডে-মিল পায় তা ভালোভাবে দেখতে হবে, না হলে ভবিষ্যতে তাদের স্বাস্থ্য নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়তে হবে সরকারকে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here