মুখ্যমন্ত্রীর “ঝড় থেমে যাবে একদিন” ছবির সমালোচনায় ভারতী ঘোষ

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ১৯ এপ্রিল: রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ঝড় থেমে যাবে একদিন নামে যে শট ফিল্ম তৈরি করছেন তার তীব্র সমালোচনা করেছেন রাজ্য বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ। তিনি এক ভিডিও বার্তায় বলেছেন, করোনা সংক্রমণের এই কঠিন পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রীর ভূমিকা দেখে তিনি আশ্চর্য হচ্ছেন। মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনা করে বিজেপি নেত্রী বলেন, রাজ্যে এতো মানুষ আক্রান্ত এতো মানুষ বিভ্রান্ত এবং কিছু মানুষ মারা যাচ্ছেন কিন্তু ঠিকমতো পরীক্ষা-নিরীক্ষা হচ্ছে না। করোনা পজেটিভদের মৃত্যুর সঠিক তথ্য লেখা হচ্ছে না। এই অবস্থায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ছবি বানাচ্ছেন এবং বলছেন ঝড় থেমে যাবে একদিন। ভারতী ঘোষ মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেন, আমাদের দেশের কিছু বিখ্যাত অভিনেতা অভিনেত্রী ফ্যামিলি নামে একটি ফিল্ম তৈরি করেছেন। সেই ফিল্ম দেখে তিনিও ভাবলেন আমাকেও একটা এরকম করে দেখাতে হবে। কিন্তু যা করা হচ্ছে সমস্ত ভুলভাল।

ঝড় থেমে যাবে একদিন শর্ট ফিল্মের উপপাদ্য হল পুলিশের একটি গাড়ি একটি মেয়েকে তার অসুস্থ বাবার কাছে পৌঁছে দিল। মেয়েটি বাবার চিকিৎসার জন্য ডাক্তার পাচ্ছে না, ওষুধ পাচ্ছে না, দেখে কয়েকজন নামি দামি লোক পুলিশ কমিশনারকে ফোন করার ফলে পুলিশ গিয়ে সব ব্যবস্থা করে দিল। ছবিটির কাহিনীর পেক্ষাপটে ভারতী ঘোষের প্রশ্ন, পুলিশ কমিশনারকে ফোন করে তাদের সমস্যার সমাধানে গ্রাম গঞ্জের কজন মানুষ সেই সুযোগ পাবে? গ্রামবাংলার কতজন মানুষই বা পুলিশ কমিশনারকে ফোন করতে পারবেন এবং কতজন পুলিশ এসে বাংলার গ্রামে গ্রামে চিকিৎসা করাতে পারবে কিংবা অসুস্থদের দেখতে তাঁদের আত্মীয়দের নিয়ে যাবে কতজন পুলিশ? আর পুলিশের আশায় কতজন মানুষই বা বসে থাকবে? ভারতী ঘোষ স্পষ্ট অভিযোগ তুলেছেন, এইসব অবাস্তব জিনিস দেখিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মানুষকে বিভ্রান্ত করছেন। ছবির কাহিনীটিই পুরোপুরি মিথ্যা। মানুষ অসুস্থ হলে পুলিশ কমিশনারকে সবাই ফোন করবে এটা কখনো সম্ভব নয়। এইসব কাল্পনিক জিনিস দেখানোর কি মানে হয় সেই প্রশ্ন রাখেন বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ। তিনি বলেন, ছবিতে দেখা যাচ্ছে একটা মেয়ে দৌড়ে পুলিশের গাড়িতে উঠে বসল। তার মুখে মাস্ক পর্যন্ত নেই, সোশ্যাল ডিসটেন্স নেই। মুখ্যমন্ত্রী এসব কি দেখাচ্ছেন এবং কেন দেখাতে চাইছেন প্রশ্ন তোলেন ভারতী ঘোষ।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ছবিতে দেখানো হচ্ছে পুলিশ অফিসার গ্রামে গ্রামে ওষুধ পৌঁছে দেবেন। কিন্তু কতজন পুলিশ অফিসার আছেন যারা ডাক্তার এনে গ্রামের মানুষদের চিকিৎসা করাবেন? আসলে এসব করে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। ভিডিও বার্তাতে মুখ্যমন্ত্রীকে ভারতী ঘোষের অনুরোধ, এসব করবেন না। তার থেকে রাজ্য প্রশাসনের মাথায় বসে থেকে করোনা নিয়ন্ত্রণ করার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করুন। তার জন্য যথেষ্ট পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর ব্যবস্থা করুন। করোনা আক্রান্তদের যে সমস্ত জায়গায় মৃত্যু হচ্ছে তা সঠিকভাবে তুলে ধরুন। এটা ছবি বানানোর সময় নয়। আর যদি প্রশাসনিক দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন না করেন তাহলে ঝড় তো থামবেই না উল্টে মনে রাখবেন এই করোনা ঝড় একদিন আপনাকে উড়িয়ে বাংলার বাইরে ফেলে দেবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here