করোনার সুযোগে জঙ্গিরা বায়ো টেরোরিস্ট অ্যাটাক করতে পারে, সতর্কীকরণ রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রধানের

আমাদের ভারত, ১০ এপ্রিল:নোবেল করোনা ভাইরাস বিশ্বজুড়ে মহামারির আকার ধারণ করেছে। বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই এই ভাইরাস মোকাবিলায় যুদ্ধ চালাচ্ছে। ফলে বিপর্যয়ের এই সময়টাই নাশকতা ঘটানোর আদর্শ সময় বলে মনে করছে জঙ্গিরা। তাই হতে পারে বায়ো টেরোরিস্ট অ্যাটাক, সতর্ক করেছেন রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রধান।

করোনা সংক্রমনের সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন দেশে নাশকতা চালাতে পারে জঙ্গিরা। এমনই অভিমত প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপুঞ্জে প্রধান অ্যান্টোনিও গুতেরেস। বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধি দেশগুলি একটি বৈঠকে বসেন তিনি। সেখানে আলোচনা হয় করোনা নিয়ে। ওই বৈঠকে এই মারন ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইকে একটি প্রজন্মের লড়াই বলেও তুলনা করেছেন গুতেরেস।

রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রধান বলেন এই মুহূর্তে করোনার গ্রাসে গোটা বিশ্ব। সব দেশই ভাইরাস মোকাবিলায় ব্যস্ত। তাই এই সময়ে বিশ্বজুড়ে শান্তি বজায় রাখা অত্যন্ত কঠিন। যেকোনো ছোট কারণে উত্তপ্ত হতে পারে পরিস্থিতি। যা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বাধা সৃষ্টি করবে।

এরপরই গুতেরেস বলেন, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সুযোগ নিতে পারে জঙ্গিরা। বায়ো টেরোরিস্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা রয়েছে প্রবল। কারণ জঙ্গিরা বুঝে গেছে এই ভাইরাসের সংক্রমণে বিভিন্ন উন্নত দেশের কি অবস্থা হয়েছে। তাই এই ভাইরাসকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেই আক্রমণ চালাতে পারে তারা। এই মুহূর্তে সব দেশ যেহেতু নিজেদের নিয়ে ব্যস্ত। সীমান্ত সুরক্ষায় কড়াকড়িও কম। তাই একাধিক দেশে নাশকতা চালানোর চেষ্টা করবে জঙ্গিরা। এই ধরনের পরিস্থিতি তৈরি হলে তা মানবতার পক্ষে হবে ভয়ঙ্কর। গোটা বিশ্বে এর প্রভাব পড়বে বলে তিনি সতর্ক করেন।

রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রধান সতর্ক করেছেন এই মহামারী সংক্রমণের সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন জঙ্গিগোষ্ঠী উস্কানিমূলক কথাবার্তা বলে পরিস্থিতি খারাপ করার চেষ্টা করছে। বেশ কিছু জায়গায় চলছে ধর্মীয় উস্কানি। রাষ্ট্রপুঞ্জের সমস্ত সদস্যের কাছে তিনি আবেদন জানিয়েছেন এই সময় কোন অশান্তি নয়। একসাথে লড়াই করতে হবে। কোনরকম উস্কানিতে পা না দিয়ে নিজের দেশের সুরক্ষা ব্যবস্থাকে জোর করার দিকেও নজর দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here