বীরসিংহ উন্নয়ন পর্ষদ গঠিত হল, পূরণ হবে উন্নয়নের আশা

কুমারেশ রায়, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৬ সেপ্টেম্বর: আজ ২৬ সেপ্টেম্বর পন্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশততম জন্মদিবস। জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে গত বছর থেকে বিভিন্ন কর্মসূচির সূচনা হয়েছিল। গতবছর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বর্ণপরিচয়ের দিশারীর জন্মভূমিতে এসেছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন, বীরসিংহকে আদর্শ গ্রাম হিসেবে তৈরি করা হবে এবং বীরসিংহ উন্নয়ন পর্ষদ গঠিত হবে। সেই আশা এবং স্বপ্ন বাস্তবায়িত হওয়ার পথে।

বিদ্যাসাগরের পূন্য জন্মভূমি বীরসিংহ গ্রাম বেশ কিছুটা পিছিয়ে ছিল। বাম আমলেও এই গ্রামের প্রতি সেভাবে নজর দেওয়া হয়নি, অথচ এটি দেশের মধ্যে একটি অন্যতম আদর্শ মডেল গ্রাম এবং পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে ওঠা প্রয়োজন ছিল। এমনটাই আশা করেছিলেন বীরসিংহ গ্রাম সহ ঘাটাল মহকুমার বাসিন্দারা। মুখ্যমন্ত্রী গত বছর বীরসিংহ উন্নয়ন পর্ষদের গঠন করার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা বাস্তবে পরিণত হতে চলেছে।
এই উন্নয়ন পর্ষদ গঠনে রাজ্য সরকার অনুমোদন দিয়েছেন, যার চেয়ারম্যান পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলাশাসক।

ঘাটাল বিধানসভার বিধায়ক শঙ্কর দলুই বলেন, বীরসিংহ উন্নয়ন পর্ষদ গঠিত হওয়ার ফলে বীরসিংহকে আদর্শগ্রাম এবং পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এই গ্রামের সমস্ত পরিকাঠামো ব্যাপকভাবে পরিবর্তিত হবে। শুধু তাই নয় এর সাথে ঘাটালকে যুক্ত করা হবে এর ফলে উন্নয়নের ব্যাপকতা আরও ছড়িয়ে পড়বে বলে শঙ্কর বাবু বলেন। এই খবরে আনন্দ প্রকাশ করেছেন ঘাটাল পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি দিলীপ মাঝি সহ বিভিন্ন মহল। বহু দিনের আশা পূরণ হবে বলে আশা প্রকাশ করছেন বীরসিংহের বাসিন্দারা। তারা চাইছেন শুধু রাজ্যের মধ্যে নয়, দেশের মধ্যে এই গ্রাম পরিণত হোক এক আদর্শ গ্রামে।

আজ বীরসিংহে জলসম্পদ ও কারিগরি দপ্তরের মন্ত্রী ড: সৌমেন মহাপাত্র, জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপার সমাপ্তি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন।বিদ্যাসাগরের মূর্তিতে মাল্যদানের মাধ্যমে শুরু হয় অনুষ্ঠান। দু’দিনব্যাপী চলবে বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সবকিছুই হবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here