তুফানগঞ্জে বিজেপির অভিন্দন যাত্রায় জন প্লাবন, তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিলীপ ঘোষের

আমাদের ভারত, কোচবিহার, ২১ জানুয়ারি:
কোচবিহারের তুফানগঞ্জে সিএএ’র সমর্থনে অভিনন্দন যাত্রায় অংশ নিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। উপস্থিত ছিলেন কোচবিহারের সাংসদ নিশীথ প্রামানিক সহ অন্যান্য জেলা নেতারা। এদিন তুফানগঞ্জের কালিবাড়ি থেকে মিছিল শুরু হয়ে দোল মেলা মাঠে শেষ হয়। সেখানে একটি জনসভায় বক্তব্য রাখেন দিলীপ ঘোষ। অভিনন্দন যাত্রাকে কেন্দ্র করে বিজেপি কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ লক্ষ্য করা যায়। স্তব্ধ হয়ে যায় রাস্তা।

এদিন জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে দিলীপ ঘোষ তৃণমূল কংগ্রেস এবং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ভোটব্যাঙ্কের কারণে সিএএ’র বিরোধিতা করছে তৃণমূল কংগ্রেস। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ থেকে যারা অত্যাচারিত হয়ে এদেশে এসেছেন তাদের জন্য কোনও কথা বলে না কংগ্রেস, সিপিএম, তৃণমূল কংগ্রেস। তিনি বলেন, এতদিন উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্ব দেওয়ার ব্যাপারে ভাবেননি কোনও দল, বিজেপি প্রথম ভেবেছে। সিএএ’র ফলে এ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে ২০০ টি আসনে জয়লাভ করবে বিজেপি বলে তিনি দাবি করেন। এদিন তিনি ফের একবার হুঁশিয়ারি দেন কোনও বাংলাদেশি
মুসলমানকে এদেশে থাকতে দেওয়া হবে না। তিনি এদেশের মুসলমানদের আশ্বস্ত করেন এনআরসি এলে তাদের কোনোও সমস্যা হবে না। যারা দেশের সম্পদ নষ্ট করে তাদের ফের একবার গুলি করে মারার হুমকি দেন তিনি।

এদিনের এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উৎসাহ লক্ষ্য করা যায় বিজেপি কর্মী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে। রাজ্য সভাপতি তুফানগঞ্জ শহরে ঢোকার পরেই রাস্তার দু’ধারে মানুষ তাকে স্বাগত জানায়। তিন কিলোমিটার অভিনন্দন যাত্রার পথ শেষ হতে দুই ঘণ্টারও বেশি সময় লাগে। মানুষের ভিড় দেখে আপ্লুত দিলীপ ঘোষ বলেন, এখনও পর্যন্ত অভিনন্দন যাত্রায় এত ভিড় তিনি আগে দেখেননি। এদিনের সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি ফের একবার পুলিশের সমালোচনা করেন। যেসব পুলিশকর্মী তৃণমূলের হয়ে কাজ করছে তাদের নাম লিখে রাখার পরামর্শ দেন কর্মীদের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here