বিজেপির জেলা সভাপতি বদল

আমাদের ভারত, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, ৭ ডিসেম্বর:

দক্ষিণ ২৪ পরগণা পূর্ব জেলার সভাপতি বদল করলেন বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। শুক্রবার সুনিপ দাসকে সরিয়ে নতুন জেলা সভাপতি করা হয় হরিকৃষ্ণ দত্তকে। শনিবার নতুন সভাপতিকে জেলা কার্যালয়ে সম্বর্ধনা জ্ঞাপন করেন বিজেপি কর্মীরা। আগামী ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনের লক্ষ্যে দলের সকল স্তরের কর্মীদের একত্রিত করে সংগঠনকে আরও মজবুত করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের বার্তা দেন নতুন সভাপতি।

বছর দুয়েক আগে ত্রিদিব মন্ডলের বদলে সুনিপ দাস জেলা সভাপতি হওয়ার পর থেকেই দক্ষিণ ২৪ পরগণার এই পূর্ব সাংগঠনিক জেলার বিজেপি কর্মীদের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের অশান্তি দেখা গিয়েছিল। একাধিকবার দলীয় কার্যালয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন বিক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মীরা। এমনকি কার্যালয়ের গেটে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন তারা। গত প্রায় দু’বছর ধরে সেই সমস্ত বিক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মী সক্রিয় ভাবে দলীয় কাজ করেননি। গত লোকসভা ভোটে এই সাংগঠনিক জেলায় বিজেপি ভালো জায়গায় থাকলেও কোনও আসনেই জিততে পারেনি। এই হারের পিছনে বিক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মীদের অসহযোগিতা অন্যতম কারণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। আর সেই কারণেই সামনেই ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে দলের রাজ্য নেতৃত্ব এমন একজন নেতাকে সভাপতি পদে বসানোর কথা ভেবেছেন যাকে নিয়ে দলের কোনও স্তরের কর্মীদের কোনও ক্ষোভ নেই। সেই কারণেই সোনারপুর থানার অন্তর্গত গোবিন্দপুরের বাসিন্দা হরিকৃষ্ণ দত্তকে জেলার নতুন সভাপতি ঘোষণা করা হয়েছে।

বিজেপি সূত্রে খবর, হরিকৃষ্ণবাবু সব বয়সের, সব ধরনের কর্মীদের সাথে মানিয়ে নিয়ে সংগঠন চালাবার ক্ষমতা ধরেন। নতুন পদ পেয়ে তিনি বলেন, “ দল আমায় এই পদের জন্য যোগ্য মনে করেছে তাই আমাকে এখানে বসানো হয়েছে। ২০২১ এর বিধানসভা ভোটে সাফল্যের লক্ষ্যে দলের সকল স্তরের কর্মীদের নিয়ে যাতে একসাথে সঙ্ঘবদ্ধ ভাবে আমরা চলতে পারি সেই চেষ্টাই করবো”।

বিদায়ী সভাপতি সুনিপ বলেন, “ যতদিন এই পদ সামলেছি দলের সংগঠন মজবুত করার চেষ্টা করেছি। বিভেদ ভুলে সকলকে নিয়ে চলার চেষ্টা করেছি। দলের সিদ্ধান্ত মাথা পেতে নিয়েছি। সংগঠন ও দলের স্বার্থে সকলের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করবো তৃণমূলের বিরুদ্ধে”।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here