বিজেপি বাংলার ভালো চায় না, অভিযোগ বাবুল সুপ্রিয়র

পার্থ খাঁড়া, আমাদের ভারত, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২০ সেপ্টেম্বর: বাংলার জন্য ভালো কিছু করা, বাঙালির জন্য কিছু করা, এটা বিজেপির মননে নেই। বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারা শুধুমাত্র বাংলা দখল করতে চেয়েছে। তা করতে না পেরেই কেন্দ্রীয় এজেন্সি লাগানো হচ্ছে এখানকার নেতাদের বিরুদ্ধে। বিজেপি সম্পর্কে এমনই মন্তব্য ব্যক্ত করলেন একসময়ের কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী ও রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়।

মঙ্গলবার সবংয়ের লাঙলকাটায় বাংলায় এজেন্সির অতি সক্রিয়তার প্রতিবাদে ‘এজেন্সি নয়, চাকরি চাই’ সভায় জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পীকে বলতে শোনা যায়, কেন্দ্রের বিজেপি সরকার নীতি গ্রহণ করেছে, হয় বিজেপিতে আসো নয়তো এজেন্সির মুখে পড়ো। ইডি, সিবিআই’য়ের জুজু দেখিয়ে একের পর এক রাজ্যে তারা সন্ত্রাসের বাতাবরণ চালাচ্ছে। বাবুল সুপ্রিয়র কথায়, “আসলে বিজেপি বাংলার মানুষের মন পায়নি। তাই আতঙ্কে রাখতে চাইছে। বাংলার মানুষের মনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি যে স্থান দখল করে নিয়েছেন তা কোনো দিন মোছা যাবে না। মুখ্যমন্ত্রী সকলকে নিয়ে চলতে ভালোবাসেন। বিজেপির চোখে চোখ রেখে আন্দোলন করেন।

রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, উনি যেন বাড়িতে নিজের মুখ আয়নায় দেখেন। আয়না না থাকলে তৃণমূল কর্মীরা ১ লক্ষ আয়না ওনার বাড়িতে পৌঁছে দেবেন।

প্রাক্তন মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র জানান, প্রধানমন্ত্রী বছরে ২ কোটি বেকারের চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তা না করে এজেন্সি পাঠাচ্ছেন।

রাজ্যের জলসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী মানস ভুঁইঞা জানান, সারা দেশে বেকারি বাড়ছে। বাংলায় মুখ্যমন্ত্রী বেকারি কমাচ্ছেন। এক সপ্তাহ আগেই তিনি হাজার হাজার বেকার যুবক যুবতীর হাতে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে চাকরির নিয়োগ পত্র তুলে দিয়েছেন। কয়েক বছরের মধ্যে বদলে যেতে চলেছে বাংলা। রাতদিন পরিশ্রম করে ৭২ হাজার কোটি টাকার লগ্নির ব্যবস্থা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। লক্ষাধিক বেকারের কর্ম সংস্থান হবে। গভীর সমুদ্র বন্দর থেকে শিল্প করিডর গড়ে উঠতে চলছে। বাংলা বাঙ্গালীর স্বপ্ন পূরণ করতে মুখ্যমন্ত্রী যখন উঠেপড়ে লেগেছেন তখন রাজ্য সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে রাজ্যে ইডি, সিবিআই পাঠাচ্ছে কেন্দ্র সরকার। কেন্দ্রীয় এজেন্সির এভাবে অপব্যবহার এর আগে কোনো সরকার করেনি।

রাজ্যের সেচমন্ত্রী পার্থ ভৌমিক জানান, কেন্দ্র ঘাটাল মাস্টার প্ল্যানে অর্থ মঞ্জুর করছে না। কেলেঘাই- কপালেশ্বরী প্রকল্পের বকেয়া টাকা দেয়নি। এসব এলাকার মানুষের দুঃখ দুর্দশা নিয়ে মাথা ঘামায় না কেন্দ্র সরকার। তারা এজেন্সি পাঠাতে ব্যস্ত। বৃষ্টি উপেক্ষা করেই সভায় মানুষের উপস্থিতি ছিল নজরকাড়া। উপস্থিত ছিলেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি উত্তম বারিক, সবংয়ের প্রাক্তন বিধায়ক গিতারানী ভুইঁঞা, ব্লক সভাপতি আবু কালাম বক্স।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here