কোভিড আবহে পুরুলিয়া জেলায় সংগঠনের চারা পুঁতছে বিজেপি

সাথী দাস, পুরুলিয়া, ৩০ জুলাই: লক্ষ্য সাংগঠনিক বিস্তার করে দলের শক্তি বাড়ানো। শুধু আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে নয়, গেরুয়া সাম্রাজ্য গড়ে তুলতে এখন সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধিতে নেমেছে পুরুলিয়া জেলা বিজেপি। করোনা আবহ খানিকটা প্রতিকূল পরিস্থিতি সৃষ্টি করলেও জেলাজুড়ে ফল্গু নদীর চোরা স্রোত বইয়ে দিতে তৎপর হয়েছে পুরুলিয়া জেলা বিজেপি। 

প্রতিটি বিধানসভা ভিত্তিক সাংগঠনিক সভায় থাকছেন রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক তথা সাংসদ জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো, জেলা পর্যবেক্ষক বিবেকানন্দ ভট্টাচার্য, জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী, সহ-সভাপতি, জেলার সাধারণ সম্পাদক, সম্পাদক, শক্তি কেন্দ্র প্রমুখ, বিভিন্ন মন্ডল সভাপতি, জেলা কমিটির সদস্য ও সাংগঠনিক কার্য কর্তারা। সাঁওতালডি, পাড়া, রঘুনাথপুর, কাশীপুর, মানবাজার, বান্দোয়ান, ঝালদা প্রভৃতি ব্লকে সংগঠন বাড়িয়ে তুলতে বৈঠক বাদ নেই কোথাও। ‘আত্মনির্ভর ভারত’ সম্পর্কে উজ্জীবিত করে বৈঠক আকর্ষণ করে তুলছেন রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক তথা সাংসদ জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো।

সংগঠন বাড়িয়ে রাজনৈতিক যুদ্ধের জন্য কার্যত সৈনিক(কর্মী) বাড়াতে চাইছে পদ্ম শিবির। জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ছুটে বেড়াচ্ছেন জেলা সংগঠকরা। গত চারদিন ধরে মহামারি কোভিড পরিস্থিতিতেও দুটি বিধানসভা কেন্দ্রে ভার্চুয়াল সভা ছাড়াও সশরীরে সাংগঠনিক সভা করলেন বিজেপি কার্যকর্তারা।

দলীয় এই কৌশল প্রসঙ্গে জেলা সভাপতি বলেন, ‘আমাদের প্রাথমিকভাবে লক্ষ্য রয়েছে বিধানসভা নির্বাচন। তবে সাংগঠনিক শক্তি বাড়িয়ে দলকে আরও মজবুত করে পদ্মফুল ফোটানো আমাদের মূল লক্ষ্য। কোভিডের কারণে কিছুটা সমস্যা হলেও আমরা দলীয় কর্মসূচি ও সাংগঠনিক সভা বিধি ও প্রশাসনিক নির্দেশ মেনে চালিয়ে যাচ্ছি।’

বিজেপির এই কৌশল আপাতত অন্যান্য রাজনৈতিক দলকে অনুপ্রাণিত করবে বলে ধারণা পুরুলিয়ার রাজনৈতিক মহলের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here