কর্মহীন পরিবারদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলেন বনগাঁর বিজেপি নেতা স্বপন মজুমদার

সুশান্ত ঘোষ, আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগণা, ১৭ জুন: লকডাউন উঠে গেলেও কাজকর্ম এখনও স্বাভাবিক হয়নি। ইতি মধ্যে প্রচুর মানুষের কাজ চলে গিয়েছে। ভিন রাজ্য থেকে ফিরে কর্মহীন হয়ে পড়েছে অনেকেই। সেই সব অসহায় কর্মহীন পরিবারদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলেন বনগাঁর গোপালনগর এলাকার জনপ্রিয় বিজেপি নেতা স্বপন মজুমদার। ইতি মধ্যেই তিনি পাঁচ হাজার পরিবারে হাতে ত্রিপল, খাদ্য সামগ্রী সহ বিভিন্ন
নিত্যপ্রয়েজনীয় সামগ্রী তুলে দিয়েছেন।

এদিন বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ শান্তনু ঠাকুরকে সঙ্গে নিয়ে উত্তর ২৪ পরগণার গোপালনগর থানার পার্লা এলাকার বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন। বিজেপি নেতা স্বপনবাবুর কাজে খুশি প্রকাশ করে সাংসদ শান্তনু ঠাকুর বলেন, স্বপনবাবুর কাজে উপকৃত বনগাঁ উত্তর বিধানসভার কয়েক হাজার মানুষ। এই মুহুতে রাজ্য সরকার যে ভাবে গরিব অসহায় মানুষদের ত্রাণ ও ক্ষতিপূরণের টাকা থেকে বঞ্চিত করছে তাতে এক প্রকার অনাহারেই দিন কাটছিল এই সব পরিবারে। স্বপনবাবুকে সাধুবাদ জানান শান্তনু ঠাকুর।

বিজেপির শুরু থেকেই দলের হয়ে কাজ করেছেন স্বপনবাবু। এলাকায় তাঁর যথেষ্ট জনপ্রিয়তা। ২০১২ সালে বনগাঁ রাজনৈতি, ধর্মীও, ও সামাজিক অনুষ্ঠান সহ দারিদ্র অসহায় রোগীদের ওষুধ দেওয়া, এলাকায় রক্তদান শিবির সহ একাধিক কাজে তিনি নিয়োজিত আছেন। লকডাউনের শুরু থেকেই তিনি গ্রামের মানুষের সাহায্য করছেন। ইতি মধ্যেই তিনি পাঁচ হাজার মানুষকে খাদ্য সামগ্রী সহ ত্রিপল বিলি করেছেন।

স্বপনবাবু বলেন, আমি কোনও রং দেখে এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছি না। এলাকার সমস্ত অসহায় মানুষের জন্য এই সামগ্রী বিলি করছি। রাজ্য সহ জেলাতে যে ভাবে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা একের পর এক সন্ত্রাস চালাচ্ছে তার ধিক্কার জানিয়ে তিনি বলেন, বনগাঁ মহকুমার সমস্ত পঞ্চায়েতে তৃণমূল সরকার ত্রাণ নিয়ে দুর্নীতি করছে। বেছে বেছে তৃণমূলদের ত্রাণ দিচ্ছে। বিজেপি সমর্থকদের ত্রাণ বা ক্ষতিপূরণের টাকা দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন তিনি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here