ঝালদায় বিজেপি পুলিশ খণ্ড যুদ্ধ, লাঠিচার্জ, আহত ২০

সাথী প্রামানিক, পুরুলিয়া, ৬ জানুয়ারি: বিনা প্ররোচনায় বিজেপির মিছিলে লাঠচার্জ করার অভিযোগ উঠল পুলিশের বিরুদ্ধে। পুরুলিয়া জেলা বিজেপির দাবি, ওই ঘটনায় কমপক্ষে ২০ জন আহত হন। ওই সময় কোনও মহিলা পুলিশ ছিল না। নির্মম ভাবে মহিলাদের উপরও লাঠি চার্জ করা হয় বলে অভিযোগ। দুই পক্ষের সঙ্গে চলে খণ্ড যুদ্ধ। আহত হন চার পুলিশ কর্মীও।
   

সোমবার, বিকেলে ঝালদা থানা এলাকার বিরসা মোড়ে ঘটনাটি ঘটে। এর পরই উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়।   উত্তেজিত বিজেপি কর্মীরা মুখ্যমন্ত্রীর কুশপুতুল পুড়িয়ে বিক্ষোভ দেখান।  ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে নিন্দা প্রকাশ করেন সাংসদ জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ওই কর্মসূচিতে সামনের সারিতে তিন জেলা নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন। হঠাৎ মিছিল আটকে আবার নিরাপত্তারক্ষী ও দলীয় কর্মীদের বাধা দেয় পুলিশ। এই রাজ্যে সবই সম্ভব। এটা নতুন কিছু নয়। 
 

বিজেপি জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী বলেন, অরাজকতার চলছে। সামান্য স্মারকলিপি কর্মসূচিতে বাধা দিল পুলিশ। তৃণমূলের লোকজন কম পড়েছে। তাই পুলিশ শাসক দলের দলদাস হয়ে কাজ করছে।
  

এদিন বিজেপির পক্ষ থেকে কৃষকদের নানা সমস্যা ও অভাব অভিযোগ নিয়ে একটি মিছিল ও  স্মারকলিপি কর্মসূচি আয়োজিত হয়।  ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতরের স্থানীয় ব্লক আধিকারিকের কাছে ওই দাবি দাওয়া সম্পর্কিত স্মারকলিপি দেয়ার কথা ছিল। ওই মিছিলে সিএএ’র সমর্থনে স্লোগান দেওয়া হয় বিজেপির পক্ষ থেকে। একই সঙ্গে এই আইনের বিরোধিতা করার জন্য শাসক দল সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের উদ্দেশ্যে ধিক্কার জানানো হয়।
 

জেলা পুলিশ সুপার এস সিলভা মুরগণ জানান, বিজেপি দাহ্য পদার্থ নিয়ে রাস্তায় মিছিল করছিল। ওই পদার্থে আগুন লেগে যেকোনো সময় সাধারণ মানুষের বড় ধরনের ক্ষতি করতে পারত। তাই সেটি সরানোর জন্য উদ্যোগ নেওয়ায় পুলিশের উপর হামলা করে বিজেপি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here