রামপুরহাট হাইস্কুলের জায়গা বাণিজ্যিক হিসাবের ব্যবহারের চেষ্টার প্রতিবাদ বিজেপির

আশিস মণ্ডল, রামপুরহাট, ৪ জুলাই: রামপুরহাট হাইস্কুলের বিতর্কিত জায়গা পরিদর্শন করলেন বিজেপির বীরভূম জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডল। তাঁর সঙ্গে ছিলেন উত্তর ২৪ পরগণার বাগদার বিধায়ক দুলাল চন্দ্র বর। দুপুরের দিকে তারা স্কুলের সামনে গিয়ে কিছুক্ষণ বিক্ষোভও দেখান। অবিলম্বে স্কুলের জায়গা পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়েছে তারা।

প্রসঙ্গত, রামপুরহাট হাইস্কুল কর্তৃপক্ষ নিজস্ব জায়গায় দোকান ঘর ভাড়া দেওয়ার জন্য পুরাতন প্রাচীর ভেঙ্গে বেশ কিছুটা জায়গা ছেড়ে দিয়ে নতুন করে প্রাচীর নির্মাণ করে। এতেই আপত্তি তোলে স্কুলের প্রাক্তনী থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। স্কুলের জায়গা বাণিজ্যিক হিসাবে ব্যবহারের প্রতিবাদ করে স্কুল থেকে প্রশাসনের সর্বস্তরে ডেপুটেশন দেয় রাজনৈতিক দলগুলি। প্রশাসনের চাপে পড়ে কাজ বন্ধ করে দেয় স্কুল কর্তৃপক্ষ। সেই জায়গা শনিবার পরিদর্শন করে বিজেপি নেতৃত্ব। তারা স্কুলের জায়গা বাণিজ্যিক হিসাবে ব্যবহারের চেষ্টার বিরোধিতা করেন।

শ্যামাপদবাবু বলেন, “শতাব্দী প্রাচীন এই স্কুলের ঐতিহ্য নষ্ট করে ব্যক্তিগত স্বার্থে তৃণমূল স্কুলের জায়গা ব্যবসার কাজে লাগানোর চেষ্টা করছে। শহরের মানুষ তৃণমূলের এই অশুভ চক্রান্তের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে। আমরাও পরিষ্কার জানিয়ে যাচ্ছি স্কুলের জায়গা কোনও মতে বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহার করতে দেব না। এখানকার বিধায়ক তারাপীঠ রামপুরহাট উন্নয়ন পর্ষদ গড়ে ব্যবসা করছে। এবার স্কুলের জায়গায় ব্যবসা করার চেষ্টা করছে। স্কুলের খেলার মাঠ পরিচালন সমিতির সভাপতিকে লিজ দেওয়া হয়েছে। খেলার মাঠ এখন মেলার মাঠে পরিণত হয়েছে। স্কুলের খেলাধুলো কার্যত বন্ধ হয়ে গিয়েছে”।

স্কুল পরিচালন সমিতির সভাপতি আরশাদ হোসেন বলেন, “আমি ছিলাম না। সেই সময় বিজেপির কিছু লোকজন স্কুলে ঢুকে ভাঙ্গচুর চালিয়েছে”।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here