কৃষি আইনের সমর্থনে মিছিল ও তৃণমূলের দুর্নীতির বিরুদ্ধে গাইঘাটা বিডিও অফিসে বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন বিজেপির

আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগণা, ৫ অক্টোবর: সংসদে সদ্য পাশ হওয়া কৃষি আইনের বিরোধিতায় 
বিক্ষোভ উত্তেজনা জেলাজুড়ে। আইনের বিরোধিতায় 
এককাট্টা বিরোধীরা।এই পরিস্থিতিতে রাজ্যজুড়ে নানান বিক্ষোভ কর্মসূচির মধ্যে বিলকে সর্বনাশা আখ্যা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা 
বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু নয়া বিলের আইনে 
লাভবান হবেন কৃষকরাই। 
সোমবার সকাল থেকে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ, 
বাগদ, গাইঘাটা, হাবড়া সহ বিভিন্ন 
এলাকায় নয়া আইনের সমর্থনে মিছিল করছে 
বিজেপি। এদিন হাবড়া ১ নং সমষ্টি
উন্নয়ন আধিকারিকের 
অফিসে প্রতীকি ধরনা এবং ডেপুটেশন জমা দিল 
ভারতীয় জনতা পার্টির একদল প্রতিনিধি। 

সোমবার দুপুরে ডেপুটেশনে সামিল হন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু, মহিলা মোর্চা সাধার
সম্পাদক তনুজা চক্রবর্তী ও হাবরার বিজেপির নেতৃত্ব সহসকল কর্মী ও সমর্থকবৃন্দ।


 
অন্যদিকে শহরে প্রায় ৫ কিলোমিটার মিছিল করে
বনগাঁ বিডিও অফিসের সামনে বিক্ষোভ করেন 
বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। এরপর তৃণমূলের দুর্নীতির 
বিরুদ্ধে স্মারকলিপি জমা দেয় তারা।বিজেপির অভিযোগ, আমফানের দুর্নীতি, কৃষি আইনের বিরোধিতা, রেশন
দুর্নীতি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার গৃহ তালিকা ও 
কেন্দ্রীয় প্রকল্প থেকে বাংলার মানুষকে বঞ্চিত করার পাশাপাশি কাটমানি নেওয়ার প্রতিবাদ সহ বেশ কয়েক দফা দাবিতে সোমবার বনগাঁ
বিডিও অফিসে স্মারকলিপি দেয় বিজেপি।           
এদিন বেলা ১১টা নাগাদ দলীয় কার্যালয় থেকে 
বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা একটি মিছিল বের করেন। এরপরে বিডিও অফিসের সামনে জড়ো হয়ে তাঁরা 
বিক্ষোভ দেখান। পরে চার জনের একটি 
প্রতিনিধি দল বিডিও আধিকারিকের সঙ্গে দেখা
করে স্মারকলিপি দেয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন 
বিজেপির উত্তর ২৪ পরগনার অন্তগর্ত বারাসাত জেলার সাংগঠনিক 
পর্যবেক্ষক রিতেশ তেওয়ারি।বিজেপি বিধায়ক বিশ্বজিত দাস, দেবদাস মণ্ডল, শোভনবৈদ্য, স্বপন মজুমদার, হরিশঙ্গকর সরকার সহ অন্যান্যরা। 

বিজেপি নেতা হরিশংকর সরকার, শোভন বৈদ্য বলেন, ‘আমাদের দাবি হল, কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের বিভিন্ন 
প্রকল্প বাবদ কাটমানি নেওয়া বন্ধ করতে হবে।যেখানে যেখানে কাটমানি
নেওয়া হয়েছে সেখানে টাকা ফেরতের ব্যবস্থা করতে
হবে। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। এছাড়া ১০০ 
দিনের কাজে স্বচ্ছতা আনতে হবে।অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘর 
বণ্টন করতে হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here