বাসন্তীতে বিজেপি কর্মীদের উপর লাঠিচার্জ পুলিশের

আমাদের ভারত, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, ১২ জুলাই:
ঘূর্ণঝড় আমফানের ক্ষতপূরণের টাকা নিয়ে স্বজনপোষণের অভিযোগে দক্ষিণ ২৪ পরগনার কাকদ্বীপের হারউড পয়েন্ট কোস্টাল থানার বাসন্তী ময়দানের কাছে ১১৭ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। দীর্ঘক্ষণ অবরোধ থাকার পর পুলিশ লাঠিচার্জ করে বিজেপি কর্মীদের হঠিয়ে দেয়। ঘটনায় বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী গুরুতর জখম হয়েছেন। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় যথেষ্ট উত্তেজনা ছড়িয়েছে।

বিজেপির অভিযোগ, কাকদ্বীপের স্বামী বিবেকানন্দ গ্রাম পঞ্চায়েতে তৃণমূল প্রধান থেকে শুরু করে সকল সদস্য ও এলাকার তৃণমূল নেতৃত্ব ঘূর্ণিঝড়ের টাকা নিয়ে স্বজনপোষণ করেছেন। যারা প্রকৃত দুর্গত তারা কোন ক্ষতিপূরণ পাননি। পরিবর্তে এলাকার তৃণমূল নেতৃত্ব থেকে শুরু করে পঞ্চায়েতের সদস্য, প্রধান, উপ প্রধান ও তাদের আত্মীয়রা এই সরকারি ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন। এর প্রতিবাদ করতে গেলে শনিবার রাতে বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বাড়িতে ঢুকে মারধর করা হয়। পুলিশ ও তৃণমূল একত্রিত হয়ে শনিবার রাতে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বাড়িতে হামলা চালায়। মারধর করে বিজেপি কর্মীদের। এক বিজেপি নেতৃত্বকে গ্রেফতার ও করে পুলিশ। এই ঘটনার প্রতিবাদে রবিবার দুপুরে রাস্তা অবরোধ করে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। ঘণ্টা খানেক ধরে ১১৭ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। ঘটনার খবর পেয়ে অবরোধ তুলতে গেলে পুলিশের সাথে অবরোধকারীদের বচসা বাধে। অভিযোগ, তখনই বিজেপির সাধারণ কর্মী সমর্থকদের ওপর পুলিশ নির্বিচারে লাঠিচার্জ করে। যদিও তৃণমূলের বক্তব্য যদি কোন অভিযোগ থাকে সঠিক জায়গায় সেই অভিযোগ করুক বিজেপি। রাজনীতি করার জন্য মানুষকে উস্কে রাস্তায় নিয়ে এসে সমস্যা তৈরি করেছে তারা। আর সেই কারনেই পুলিশ পুলিশের কাজ করেছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে।

কাকদ্বীপের বিধায়ক তথা সুন্দরবন উন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী মন্টুরাম পাখিরা বলেন, “ক্ষতিপূরণের বিষয়ে প্রথম থেকেই রাজনীতি করছে বিজেপি। কারো বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে নির্দিষ্ট জায়গায় তারা অভিযোগ জানাক। এ নিয়ে সাধারণ গ্রামবাসীদের উস্কে নিয়ে এসে রাস্তা অবরোধ করা উচিৎ হয়নি। অবরোধ তুলতে পুলিশের যা করণীয় পুলিশ তাই করেছে”। এই ঘটনায় মোট বারোজন বিজেপি কর্মী সমর্থককে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় যথেষ্ট উত্তেজনা রয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here