পৌরসভা নির্বাচনের আগে খড়্গপুরে বিজেপির গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব 

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ৫ ডিসেম্বর: পৌরসভা নির্বাচনের আগে খড়্গপুরে বিজেপির গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসায় শোরগোল পড়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় খড়্গপুরের বিজেপি বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায় বনাম বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষের অনুগামীদের হাতাহাতি গড়িয়েছিল থানা অবধি। দিলীপ ঘোষের অনুগামী এক মন্ডল সভাপতির বিরুদ্ধে খড়্গপুর টাউন থানায় অভিযোগ দায়ের করেন হিরণ অনুগামীরা।
তারই প্রতিশোধ নিলেন দিলীপ অনুগামীরা। দলীয় পোষ্টার থেকে ছেঁটে ফেললেন বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়ের নাম। যা নিয়ে সরগরম বিজেপির গোষ্ঠী রাজনীতি।”

শনিবার খড়গপুর শহরের বিভিন্ন জায়গায় বিশেষ করে রেল কলোনীর দিলীপ ঘোষের কার্যালয় লাগোয়া রাস্তাজুড়ে লাগানো হয়েছে বেশকিছু পোষ্টার এবং হোর্ডিং। বিজেপির রাজ্য সভাপতি পদে সুকান্ত মজুমদারকে নিয়ে আসার পর দিলীপ ঘোষকে দলের সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি পদ দেওয়া হয়েছে।

সে কারণেই তাঁকে অভিনন্দন জানিয়ে এই পোষ্টার এবং হোর্ডিং। সেই পোষ্টার এবং হোর্ডিংয়ে দিলীপ ঘোষের সঙ্গে রয়েছে বিজেপির সদ্য নির্বাচিত রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার, বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী সহ বিভিন্ন নেতার ছবি। কিন্তু কোথাও নেই হিরণের ছবি।

দিলীপ ঘোষকে অভিনন্দন জানিয়ে, যাঁরা পোস্টার দিয়েছেন, তাঁরা বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতির অনুগামী হিসেবেই এলাকায় পরিচিত। স্বাভাবিক ভাবেই ঘটনা জানার পর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন বিজেপির তারকা বিধায়ক। বিঁধেছেন দলেরই একাংশকে। কটাক্ষ করে বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায় বলেন, যাঁরা হোর্ডিং লাগিয়েছেন তাঁরা মাত্র কজন তো ভোট দিয়ে জেতাবেন না। ওই চার পাঁচজন যে হোর্ডিংয়ে থাকলেন তাঁরা তো বোর্ড গড়বেন না। বোর্ড গড়বে আমার সঙ্গে থাকা এই সাধারণ জনতা। আমি নিজেও কাজ করে কোথাও আমার ছবি টাঙাইনি।

বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেছেন, পার্টির ব্যানার পোষ্টারে বিধায়কের ছবি থাকবে না এটা হতে পারে না। আমি এখনও পর্যন্ত লিখিত কোনও অভিযোগ পাইনি। পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সব মিলিয়ে পুরভোটের আগে খড়্গপুরে জমে উঠেছে বিজেপির গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব।

একটি বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, রাজ্য কমিটি হস্তক্ষেপ না করলে এবং ওই পোষ্টার ব্যানারে হিরণের ছবি না জুড়লে দিলীপ ঘোষকে বাদ দিয়ে হিরণের ছবি দিয়ে আলাদা পোষ্টার লাগানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁর অনুগামীরা।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here