ব্যাঙ্ক কর্মীর বাড়িতে বোমাবাজি, উত্তেজনা পলতায়

আমাদের ভারত, ব্যারাকপুর, ১৯ সেপ্টেম্বর: উত্তর ২৪ পরগনার পলতার কল্যাণ গ্রামে ব্যাঙ্ক কর্মীর বাড়িতে দুষ্কৃতী হামলার ঘটনায় ওই এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ল। শনিবার ভোর রাতে কল্যাণগ্রামের বিশ্বাস বাড়িতে হামলা করে স্কুটি করে আসা দুই দুষ্কৃতী। তারা বিশ্বাস বাড়ি লক্ষ্য করে পর পর ৩টে বোমা মারে বলে অভিযোগ।

পেশায় ব্যাঙ্ক কর্মী নিলেশ বিশ্বাস বলেন, “ভোর রাতে ৩ টে নাগাদ এই ঘটনা ঘটেছে। আমাদের কারুর সঙ্গে কোনও শত্রুতা নেই, কিন্তু তবুও আমাদের বাড়ি লক্ষ্য করে পর পর ৩ টে বোমা ছোঁড়া হল। দুজন দুষ্কৃতী অল্প বয়স্ক তারা এই ঘটনা ঘটিয়ে গাড়ি চালিয়ে পালিয়ে গেছে। আমরা কোনও কিছুতেই সাথে পাঁচে থাকি না। কেন এরকম ঘটনা ঘটল জানি না। পুলিশকে জানিয়েছি সব। আমি সার্ভিস করি, ভাই গাড়ির ব্যবসা করে। বাবা নেই, মাকে নিয়ে আমরা দুই ভাই থাকি। বিষয়টা যখন বোমা নিয়ে হামলা, তখন আতঙ্কিত হবই।

বিশ্বাস বাড়ির গৃহকর্ত্রী লিপিকা বিশ্বাস বলেন, “ভোর ৩টে নাগাদ বোমা মারা হয়েছে। একটি দেওয়ালে ফেটেছে, একটি জানালায় আটকে ছিল। জানালার কাঁচ ভেঙগে গেছে। আরও একটি বোমা পুলিশ উদ্ধার করে স্থানীয় খালের জলে ফেলে দিয়েছে। আমাদের কারোর সঙ্গে কোনও শত্রুতা নেই। এই পাড়ায় গত ৩০ বছরে এরকম ঘটনা ঘটেনি। আজকে আমার বাড়িতেই বোমা মারা হল। টিটাগড় থানার পুলিশকে খবর দিলে ওরা ঘটনাস্থলে এসে বোমার স্প্লিন্টার ও কিছু সামগ্রী উদ্ধার করে নিয়ে যায়। কে এবং কেন আমাদের বাড়িতে বোমা ছুঁড়ল কিছুই বুঝতে পারছি না। আতঙ্কে আছি।”

টিটাগড় থানার পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। দুষ্কৃতীরা এখনো অধরা। পুলিশ জানিয়েছে, দুষ্কৃতীদের খোঁজ চলছে। দ্রুত গ্রেফতার হবে অভিযুক্তরা।

এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার কারণে পলতা অঞ্চলে বর্তমানে দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম প্রচণ্ড বেড়ে গিয়েছে। রাতে পুলিশি টহল বাড়ানোর দাবি করেছেন পলতার কল্যাণ গ্রামের বাসিন্দারা। টিটাগড় থানার পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here