ডিজেলের দাম বাড়লেও ভাড়া বাড়ানো যাচ্ছে না, চরম আর্থিক ক্ষতির মুখে উত্তর দিনাজপুরের বাস মালিকরা

স্বরূপ দত্ত, আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ২৩ জুন: একেতেই বাসগুলিতে যাত্রী নেই বললেই চলে, তার মধ্যে একমাসে দশ বারো বার ডিজেলের দাম বেড়েছে, অথচ ভাড়া বৃদ্ধি করা যাচ্ছে না ফলে চরম আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন উত্তর দিনাজপুর জেলার বেসরকারি বাস মালিকেরা। আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ে ইতিমধ্যেই রাস্তায় বাসের সংখ্যা কমে গিয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে রাস্তায় আর বেসরকারি বাসের দেখা মিলবে না বলে জানালেন উত্তর দিনাজপুর বাস মিনিবাস ওনার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন।

বিশেষ করে রায়গঞ্জ-শিলিগুড়ি রুটে ডালখোলা জ্যামের কারণে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন বেসরকারি বাস মালিকেরা। জেলা প্রশাসন এই বিষয় নিয়ে একেবারেই নীরব। কোনও উদ্যোগই গ্রহণ করছে না উত্তর দিনাজপুর জেলা পরিবহন দপ্তর এমনটাই অভিযোগ তুলেছেন উত্তর দিনাজপুর বাস মিনিবাস ওনার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্লাবন প্রামানিক।

করোনা আবহের কারণে রাজ্য সরকারের আহ্বানে রাস্তায় বাস ও মিনিবাস নামিয়েছিলেন উত্তর দিনাজপুর বাস মিনিবাস ওনার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন। রায়গঞ্জ-শিলিগুড়ি রুটে দিনে তিনটি বাস চালানো হলেও ডালখোলা জ্যামের কারণে কোনও বাসই শিলিগুড়িতে নির্দিষ্ট সময়ে পৌঁছাতে পারছে না। বাসে যাত্রী সংখ্যাও নগন্য। ফলে দিনের পর দিন রাস্তায় বাস চালিয়ে চরম আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন বাস মালিকেরা। এরই মধ্যে ডিজেলের দাম প্রতিদিনই বৃদ্ধি হওয়ায় নিজেদের ঘর থেকে কর্মীদের বেতন ও জ্বালানি খরচ চালাতে হচ্ছে তাদের। বাস চালিয়ে উপার্জন না হলে কিভাবে কর্মীদের বেতন দেবেন তারা৷ একসময় কর্মীদের বেতন দেওয়া বন্ধ হয়ে যাবে। ফলে রাস্তায় বন্ধ হয়ে পড়বে বেসরকারি বাস পরিষেবা।

উত্তর দিনাজপুর বাস মিনিবাস ওনার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্লাবন প্রামানিক অভিযোগ করে বলেন, জেলা প্রশাসন ডালখোলা জ্যাম নিয়ে কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছে না। জ্বালানির দাম বৃদ্ধি পেলেও বাসের ভাড়া বৃদ্ধি করা যাচ্ছে না। প্রশাসন থেকে বাসকর্মীদের স্যানিটাইজার, মাস্ক গ্লাভস দেওয়ার কথা থাকলেও তা প্রদান করেনি। বাস মালিকদের কিনে দিতে হচ্ছে। বেসরকারি বাস পরিষেবা দিতে গিয়ে চরম আর্থিক বিপর্যয়ের মধ্যে পড়েছেন তারা। ফলে একসময় উত্তর দিনাজপুর জেলায় বেসরকারি বাস পরিষেবা বন্ধ হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা বাস মালিকদের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here