যশোররোড অবরোধ ও করোনা বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করায় বিজেপি বিধায়ক সহ ৩৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

সুশান্ত ঘোষ, আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগণা, ২১ জানুয়ারি: বেআইনি জমায়েত, জাতীয় সড়ক অবরোধ করে করোনা বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ দক্ষিণ কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক স্বপন মজুমদার সহ ৩৭ জন বিজেপি নেতা কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করল গাইঘাটা থানার পুলিশ। শুক্রবার এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় রাজনৈতিক মহলে। যদিও পুলিশ এখনও কাউকে গ্রেফতার করেনি।

বিজেপি সূত্রের খবর, মঙ্গলবার নদিয়ার কল্যাণীতে দলীয় কর্মসূচিতে যোগদান করতে গিয়ে আক্রান্ত হন বিজেপির বনগাঁ সাংগঠনিক জেলার সভাপতি রামপদ দাস। তাঁর গাড়িও ভাঙ্গচুর করা হয়। এই ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার সাংগঠনিক জেলার বিভিন্ন অংশে রাস্তা অবরোধ, বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে বিজেপি। গাইঘাটার চাঁদপাড়া এলাকায় এমন একটি কর্মসূচিতে, তৃণমূল কর্মীদের উদ্দেশ্যে বিজেপি বিধায়ক স্বপন মজুমদার বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, ক্ষমতায় এলে যারা তালিবানি শাসনে বিশ্বাসী সেই সব হার্মাদদের এই পুলিশকে দিয়ে এনকাউন্টার করা দরকার। এই নিয়ে গোটা রাজ্যে সমোলোচোনার ঝড় ওঠে বিভিন্ন রাজনৈতিক মহলে।

পুলিশ জানিয়েছে, বুধবার স্বপন মজুমদারের নেতৃত্বে, প্রায় শতাধিক কর্মীদের নিয়ে বেআইনি জমায়েত, জাতীয় সড়ক অবরোধ করে করোনা বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করেছে। এই অভিযোগে স্বপনবাবু সহ ৩৭ জনের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার ঘটনায় বিধায়ক স্বপন মজুমদার বলেন, পশ্চিমবঙ্গে যে গণতন্ত্র নেই তা আর এক বার প্রমাণ। পশ্চিমবঙ্গের পুলিশের মেরুদণ্ড নেই সেটা আর এক বার প্রমাণ হল। তিনি বলেন, দিন দুই এক আগে সর্বভারতীয় দলের একজন জেলা সভাপতির উপরে হামলা চালানো হল, তাঁর গাড়ি ভাঙ্গচুর করা হল সেই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারল না পুলিশ। সামান্য প্রতিবাদ সভায় ৩৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করছে পুলিশ। যদিও সেখানে করোনা বিধি মেনেই প্রতিবাদ বিক্ষোভ করা হয়েছিল। তিনি বলেন, পুলিশের কিছু করার নেই হার্মাদ বাহিনীর কথায় কাজ না করলে তাঁদের চাকরি নিয়ে টানা টানি পরে যাবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here